পুণে: ফলো-অনের লজ্জা এড়ানো সম্ভব হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে৷ ভারতের ঝুলিয়ে দেওয়া প্রথম ইনিংসের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে একবার অল-আউট হওয়া সত্ত্বেও পুনরায় দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে বাধ্য হয় প্রোটিয়ারা৷ পুণে টেস্টে ফলো-অন করতে নেমেও স্বস্তিতে নেই ফ্যাফ ডু’প্লেসিরা৷ চতুর্থ দিনের মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতিতে দক্ষিণ আফ্রিকা তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৪ রান তুলতেই টপ অর্ডারের চার জন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসেছে৷ অর্থাৎ ভারতের থেকে এখনও ২৫২ রানে পিছিয়ে রয়েছে প্রোটিয়ারা৷

আরও পড়ুন: অভিষেক দ্বিশতরানে আন্তর্জাতিক নজির সঞ্জু স্যামসনের

প্রথম ইনিংসে ভারতের ৫ উইকেটে ৬০১ রানের জবাবে দক্ষিণ আফ্রিকা অল-আউট হয়ে যায় ২৭৫ রানে৷ ৩২৬ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে প্রোটিয়ারা৷ স্কোরবোর্ডে কোনও রান যোগ করার আগেই তারা হারিয়ে বসে এডেন মার্করামের উইকেট৷ খাতা খোলার আগেই মার্করাম ইশান্ত শর্মার বলে এলবিডব্লিউ হন৷ যদিও ডিআরএসের সাহায্য নিলে বেঁচে যেতে পারতেন প্রোটিয়া ওপেনার৷ টেলিভিশন রিপ্লে’তে দেখা যায় বল লেগ স্ট্যাম্প ছাড়িয়ে যাচ্ছিল৷

আরও পড়ুন: আবির্ভাবেই ফাইনালে মঞ্জু রানি, সেমিতে হেরে টুইটারে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন মেরি

তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা থিউনিস ডি’ব্রুইনকে ব্যক্তিগত ৮ রানের মাথায় ফিরিয়ে দেন উমেশ যাদব৷ যদিও এটি উমেশের থেকেও বেশি করে ঋদ্ধিমাম সাহার উইকেট বলাই শ্রেয়৷ লেগ স্ট্যাম্পের বাইরের বল গ্লান্স করেন ডি’ব্রুইন৷ বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে এক হাতে উড়ন্ত ক্যাচ ধরেন বাংলার উইকেটকিপার৷

আরও পড়ুন: দক্ষিণ আফ্রিকাকে ফলো-অন করাল টিম ইন্ডিয়া

ফ্যাফ ডু’প্লেসি ৫ রান করে অশ্বিনের বলে সাহার হাতে ধরা দেন৷ এক্ষেত্রেও ক্যাচ ধরার সময় দুরন্ত ক্ষিপ্ততার পরিচয় দেন ঋদ্ধি৷ ডিন এলগার অহেতুক অশ্বিনকে তুলে মারতে গিয়ে উমেশ যাদবের হাতে ধরা পড়ে যান৷ আউট হওয়ার আগে এলগার ৮টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৭২ বলে ৪৮ রান করেন৷ লাঞ্চের বিরতির সময় বাভুমা ২ ও ডি’কক ১ রানে ব্যাট করছেন৷