জোহানেসবার্গ: স্যান্ড পেপার গেট কাণ্ডের পর স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফট, তিন ক্রিকেটারকে নিয়ে তামাশা শুরু ক্রিকেটবিশ্বে৷ জোহানেসবার্গে প্রোটিয়া-অস্ট্রেলিয়া সিরিজের শেষ টেস্টে ধরা পড়ল অজি ক্রিকেটারদের নিয়ে উপহাসের এমনই এক দৃশ্য৷

শুক্রবার শেষ টেস্টের প্রথম দিনে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটভক্তদের কাছে তামাশার শিকার হন স্মিথ-ওয়ার্নাররা৷  অস্ট্রেলিয়া দলকে কাটক্ষ করে প্রোটিয়া ক্রিকেট অনুরাগীরা ব্যানারে লেখেন, ‘মাত্র ১০ ব়্যান্ড খরচ করলেই মিলবে স্যান্ড পেপার৷’ (দক্ষিণ আফ্রিকান কারেন্সিকে ব়্যান্ড বলা হয়৷) স্মিথ-ওয়ার্নারের মুখোশ পড়ে ব্যানার হাতে এভাবেই অভিনব স্লোগান ব্যবহার করে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারদের উপহাস করতে থাকেন জো’বার্গের ক্রিকেট সমর্থকরা৷

আরও পড়ুন-ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমে ট্রোলড হচ্ছেন স্মিথরা

ক্রিকেটবিশ্বের অন্য প্রান্তে খণ্ডচিত্রে ধরা পড়ল স্যান্ডপেপার গেট কাণ্ড নিয়ে আরও এক উপহাসের চিত্র৷ ক্রাইস্টচার্চে ইংল্যান্ড বনাম নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন ইংল্যান্ড সমর্থকরা মাথায় ব্যাগি গ্রিন টুপি ও হাতে স্যান্ডপেপারে টুকরো নিয়ে ছবি তুলে তা সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করেন৷ সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটদলকে উপহাস করে ব্রিটিশ সমর্থকরা লেখেন, ‘অস্ট্রেলিয়ান লিডারশিপকে স্বাগত জানান৷’

শুধু তাই নয়, স্যান্ডপেপার কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত তিন ক্রিকেটারের কান্নায় ভেঙে পড়ার দৃশ্যকে ব্যঙ্গ করে ব্রিটিশ ক্রিকেট অনুরাগীরা লিখেছেন, ‘অস্কারের জন্য স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফটদের নমিনেট করা উচিত৷’

ক্যামেরায় ধরা পড়েছে ক্রাইস্টচার্চে ম্যাচ চলাকালীন রস টেলরকে অটোগ্রাফ নেওয়ার জন্য স্যান্ডপেপার বাড়িয়ে দিয়েছেন এক ক্রিকেট ভক্ত৷ স্যান্ডপেপারে টেলরের সই গ্রহণ করে সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করতে ইতিমধ্যেই তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে৷ পুরো ঘটনাই যে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের কলঙ্কিত অধ্যায় স্যান্ডপেপার গেট কাণ্ডকে কটাক্ষ করে করা হয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷

প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে কেপটাউনে তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনে স্যান্ডপেপারের টুকরো দিয়ে বল বিকৃতির চেষ্টা করেন ক্যামেরন ব্যানক্রফট৷পরিকল্পনা অনুযায়ী পুরো ঘটনা পরিচালনা করে অস্ট্রেলিয়া দলের লিডারশিপের দায়িত্বে থাকা অধিনায়ক স্মিথ ও সহঅধিনায়ক ওয়ার্নার৷ধরা পড়ার পর উপযুক্ত শাস্তি হিসেবে লিডারশিপের দায়িত্বে থাকা এই দুই ক্রিকেটারকে সবধরনের ক্রিকেট ফর্ম্যাট থেকে ১২ মাসের নির্বাসনে পাঠিয়েছেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷আর ব্যানক্রফটে ৯ মাসের নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে৷