জোহানেসবার্গ: টেস্ট সিরিজ হারের ধাক্কা সামলে ঘুরে দাঁড়াল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচে একতরফা জয় তুলে নিল প্রোটিয়ারা৷

ওয়ান্ডারার্সের টসে জিতে শ্রীলঙ্কাকে প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফ্যাফ ডু’প্লেসি৷ শুরু থেকেই ধারাবাহিকবাবে উইকেট খোয়াতে থাকা দ্বীপরাষ্ট্র ৪৭ ওভারে ২৩১ রানে অলআউট হয়ে যায়৷ হাফসেঞ্চুরি করেন কুশল মেন্ডিস৷ হাফসেঞ্চুরির দোরগোড়া থেকে ফেরেন ওশাদা ফার্নান্দো৷ লুঙ্গি এনগিদির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে উইকেট তোলেন ইমরান তাহির৷

আরও পড়ুন: এশিয়ান গেমসে পদক জয়ের সুযোগ কোহলিদের সামনে

জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়ারা ৩৮.২ ওভারে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ২৩২ রান তুলে নেয়৷ অধিনায়কোচিত শতরান করেন ডু’প্লেসি৷ ঝোড়ো হাফসেঞ্চুরি করেন কুইন্টন ডি’কক৷ ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে দক্ষিণ আফ্রিকা ৫ ম্যাচের একদিনর সিরিজে ১-০ এগিয়ে যায়৷

টেস্টে দৃঢ়তা দেখালেও প্রথম একদিনের ম্যাচে সিংহলি ব্যাটসম্যানরা নিজেদের যথাযথ মেলে ধরতে ব্যর্থ৷ দুই ওপেনার ডিকওয়েলা (৮) ও থরঙ্গা (৯) দুই অঙ্কের রানে পৌছতে ব্যর্থ৷ কুশল পেরেরা ৩৩ রান করে আউট হন৷ ফার্নান্দো ৪৯ রান করে ক্রিজ ছাড়েন৷

আরও পড়ুন: চোয়াল চাপা লড়াইয়েও ইনিংস হারের লজ্জায় টাইগাররা

মেন্ডিস দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬০ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন৷ ডি’সিলভা আউট হন ব্যক্তিগত ৩৯ রানে৷ বাকিদের মধ্যে দু’অঙ্কের রান বলতে ক্যাপ্টেন মালিঙ্গার ১৫৷ দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন এনগিদি ও তাহির৷ একটি করে উইকেট রাবাদা ও নর্ৎজের৷

দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসের শুরুটাও মনে রাখার মতো হয়নি৷ মাত্র ১ রান করে আউট হন ওপেনার হেনড্রিক্স৷ তবে ডু’প্লেসিকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে ১৩৬ রান যোগ করেন অপর ওপেনার ডি’কক৷ শেষে কুইন্টন ৭২ বলে ৮১ রান করে আউট হন৷

আরও পড়ুন: শেষ ওয়ান ডে-তে দ্রুততম অর্ধশতক গেইলের

ভ্যান ডার দুসেনকে সঙ্গে নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন ডু’প্লেসি৷ দুসেন ৩২ ও ডু’প্লেসি ১১২ রান করে অপরাজিত থাকেন৷ ম্যাচের সেরা হন ডু’প্লেসি৷একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এটি তাঁর ১১তম শতরান৷