সেঞ্চুরিয়ন: টেস্ট সিরিজে হারতে হলেও জোহানেসবার্গের প্রথম একদিনের ম্যাচে দাপুটে জয় তুলে নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষণ দেখিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ সেঞ্চুরিয়নের দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচেও জয়ের ধারা বজায় রাখল প্রোটিয়ারা৷ সুপার স্পোর্ট পার্কে শ্রীলঙ্কাকে ১১৩ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাস্ত করল দক্ষিণ আফ্রিকা৷

টসে জিতে শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক লাসিথ মালিঙ্গা প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান দক্ষিণ আফ্রিকাকে৷ শুরুটা দারুণ করলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৪৫.১ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকা অলআউট হয়ে যায় ২৫১ রানে৷ জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ধারাবাহিকভাবে উইকেট হাতে থাকা শ্রীলঙ্কা ৩২.২ ওভারে মাত্র ১৩৮ রানে তাদের সব উইকেট খুইয়ে বসে৷

আরও পড়ুন: গেইলের ব্যর্থতায় ধাক্কা খেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

ওয়ান্ডারার্সে ফ্যাফ ডু’প্লেসির শতরানে ভর করে দক্ষিণ আফ্রিকার জয় ছিনিয়ে নিলেও দলের পারফরমেন্সে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি’কক৷ ডু প্লেসির অপরাজিত ১১২ রানের পাশাপাশি জো’বার্গে ৮১ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেছিলেন তিনি৷ সেঞ্চুরিয়ানের ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নেমে নিশ্চিত শতরান হাতছাড়া করেন ডি’কক৷ ব্যক্তিগত ৯৪ রানে থিসারা পেরেরার বলে ডিকওয়েলার হাতে ধরা পড়ে যান তিনি৷ ৭০ বলের ইনিংসে ১৭ টি চার ও একটি ছক্কা মারেন ডি’কক৷

তাঁকে যথাযোগ্য সংগত করেন ডু’প্লেসি৷ যদিও ৬৬ বলে ৫৭ রান করে তিনিও থিসারা পেরেরার শিকার হন৷ হাফসেঞ্চুরি করার পথে ৫ হাজার ওয়ান ডে রানের মাইলস্টোন টপকে যান ডু’প্লেসি৷ তিনি ১২৫ ইনিংসে এমন কৃতিত্ব অর্জন করেন৷ হাসিম আমলা ও এবি ডি’ভিলিয়ার্স ছাড়া ওয়ান ডে ক্রিকেটে ডু’প্লেসির থেকে দ্রুত ৫ হাজার রান করেননি আর কোনও প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান৷

আরও পড়ুন: মুস্তাক আলির সুপার লিগের আগে আনফিট রাহানে

বাকিদের মধ্যে বলার মতো রান শুধু হেনড্রিক্সের ২৯ ও মিলারের ২৫৷ শ্রীলঙ্কার হয়ে থিসারা পেরেরা ৩টি এবং মালিঙ্গা ও ডি’সিলভা ২টি করে উইকেট নেন৷ একটি করে উইকেট ফার্নান্দো, রজিতা ও ধনঞ্জয়ার৷

শ্রীলঙ্কার হয়ে সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন ফার্নান্দো৷ কুশল মেন্ডিস করেন ২৪ রান৷ থিসারা পেরেরার সংগ্রহ ২৩৷ কাগিসো রাবাদা ৪৩ রানে ৩ উইকেট নেওয়ার পথে ওয়ান ডে ক্রিকেটে ১০০ উইকেটের মাইলস্টোন টপকে যান৷ দু’টি করে উইকেট নেন এনগিদি, নর্ৎজে ও ইমরান তাহির৷ম্যাচের সেরা হয়েছেন ডি’কক৷ এই জয়ের সুবাদে পাঁচ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ২-০ এগিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ বাকি তিনটি ম্যাচের একটিতে জিততে পারলেই ওয়ান ডে সিরিজের দখল নেবে প্রোটিয়ারা৷