রাওয়ালপিন্ডি: এশিয়ার দেশগুলোর প্রতি চক্রান্তের চেষ্টা চলছে, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এটা কখনোই হতে দেবে না। আইসিসি’র চারদিনের টেস্ট ম্যাচের প্রস্তাবের বিরোধিতায় সুর চড়ালেন শোয়েব আখতার।

বাণিজ্যিকভাবে সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটের ক্রিকেট অনেক বেশি লাভজনক। তাই সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটের জন্য বরাদ্দ দিনসংখ্যা বাড়াতে টেস্ট ক্রিকেট চারদিনে কমিয়ে আনার প্রস্তাব দিয়েছে আইসিসি। সর্বসম্মতিক্রমে আগামী ২০২৩ থেকে যা দিনের আলো দেখতে পারে। কিন্তু ইতিমধ্যেই চারদিনের টেস্টের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন প্রাক্তন থেকে বর্তমান ক্রিকেটাররা। তালিকায় নয়া সংযোজন শোয়েব আখতার। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার প্রস্তাবকে পত্রপাঠ খারিজ করে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে বললেন, ‘চারদিনের টেস্ট ম্যাচের প্রস্তাব এশিয়ার দেশগুলোর পরিপন্থী।’

আরও পড়ুন: পিচ শুকোতে হেয়ার ড্রায়ার, নেটদুনিয়ায় সমালোচনার ঝড়

একইসঙ্গে আইসিসি’র এমন প্রস্তাবকে ‘আবর্জনা’ আখ্যা দিয়ে প্রাক্তন তারকা পেসার জানিয়েছেন, বিশ্বের সবচেয়ে বিত্তশালী ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সম্মতি না পেলে আইসিসি’র এমন প্রস্তাব কার্যকর করা সম্ভব নয়। আর বিসিসিআই’য়ের বর্তমান সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় একজন দক্ষ প্রশাসক, টেস্ট ক্রিকেটকে তিনি কখনোই ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেবেন না। তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে আখতার জানিয়েছেন, ‘সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় প্রশাসক এবং মানুষ হিসেবে বুদ্ধিমান। তিনি কখনোই টেস্ট ক্রিকেটের ক্ষতি চাইবেন না। যেনতেন প্রকারেন তিনি টেস্ট ক্রিকেটকে বাঁচিয়ে রাখতে উদ্যোগী হবেন।’

আরও পড়ুন: জাতীয় বিপর্যয়ে প্রিয় ‘ব্যাগি গ্রিন’কে নিলামে তুললেন ওয়ার্ন

একইসঙ্গে এব্যাপারে কিংবদন্তি সচিন রমেশ তেন্ডুলকরের মন্তব্যের প্রতিধ্বনি শোনা গিয়েছে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসের গলায়। ‘মুস্তাক আহমেদ, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, হরভজন সিং, অনিল কুম্বলে টেস্ট ক্রিকেটে ৪০০-৫০০ উইকেট নেওয়া এক-একটি নাম। তাই টেস্ট ক্রিকেট পাঁচদিনের হয়ে গেলে স্পিনারদের ভবিষ্যৎ কী হবে? প্রশ্ন তুলেছেন আখতার। উল্লেখ্য, ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, সচিন তেন্ডুলকর, গৌতম গম্ভীর, অস্ট্রেলিয়া কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার, ন্যাথন লায়ন, গ্লেন ম্যাকগ্রা, রিকি পন্টিং এঁরা প্রত্যেকেই ইতিমধ্যে চারদিনের টেস্টের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV