মুম্বই: বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন ঘিরে অতীতেও উত্তেজনার সাক্ষী থেকেছে দেশের ক্রিকেটমহল, কিন্তু নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে ঘিরে দেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের এমন উন্মাদনা নৈব নৈব চ। আর হবেই বা কী করে? সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই দেশের প্রথম ক্রিকেটার যিনি বোর্ডের প্রেসিডেন্টের কুর্সিতে বসলেন। আর ২০০০ দেশের অধিনায়ক হিসেবে পাওয়া সম্মানের ব্লেজার গায়ে চাপিয়েই প্রেসিডেন্টের কুর্সিতে বসলেন মহারাজ। যা একপ্রকার দৃষ্টান্ত হয়ে রইল ভারতীয় ক্রিকেটে।

২০০০ ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হিসেবে সৌরভকে যে ব্লেজার প্রদান করা হয়েছিল, সেই ব্লেজার গায়ে চাপিয়ে প্রথমদিন কুর্সিতে বসে আবেগতাড়িত নয়া প্রেসিডেন্ট। ‘ভারতের অধিনায়ক হয়ে আমি এই ব্লেজার হাতে পেয়েছিলাম, তাই এই ব্লেজার পড়েই প্রথমদিন প্রেসিডেন্ট পদে বসব ঠিক করেছিলাম। তবে এটা যে এত লুজ সেটা বুঝতে পারিনি।’ সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন সৌরভ।

উল্লেখ্য, ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া যখন ভারতীয় ক্রিকেটকে গ্রাস করেছে। গড়াপেটায় অভিযুক্ত মহম্মদ আজহারউদ্দিন পরবর্তী দেশের পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছিলেন ‘প্রিন্স অফ ক্যালকাটা’। আর এদিন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে যখন দেশের ক্রিকেটের শীর্ষকর্তা হিসেবে দায়িত্বভার বুঝে নিতে ব্যস্ত, তখন ভারতীয় ক্রিকেটের অবস্থাও খানিকটা একইরকম। প্রসঙ্গে মহারাজ বলেন, ‘আমাকে নয়া ভূমিকায় বেছে নেওয়ার জন্য আমি অত্যন্ত সম্মানিত। বিসিসিআইয়ের নয়া ইনিংস শুরু হল। কাকতলীয় বলুন, সৌভাগ্য বলুন কিংবা দুর্ভাগ্য আমি যখন অধিনায়ক পদে বসেছিলাম তখনও একই পরিস্হিতি ছিল।’

অর্থাৎ, চ্যালেঞ্জটা যে শক্ত হাতেই গ্রহণ করছেন সেটা হাবেভাবে বুঝিয়ে দেন দেশের অন্যতম সফল অধিনায়ক। ন’মাসের জন্য বোর্ডের কার্যভার গ্রহণ করে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে এদিন তাঁর প্রথম সাংবাদিক সম্মেলন ছিল যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ। সেখানে সৌরভ জানান, ‘আমি একদম আমার মতো করেই দায়িত্ব সামলাবো। সেখানে বিশ্বাসযোগ্যতার সঙ্গে আপোস করার কোনও প্রশ্নই নেই। ভারতীয় দলকে যেভাবে নেতৃত্ব দিয়ে এসেছি সেভাবে দেশের ক্রিকেট বোর্ডকেও এগিয়ে নিয়ে যাব।’

একইসঙ্গে তাঁর নয়া টিমকে ভিষণ আশাবাদী সৌরভ। নয়া প্রেসিডেন্টের কথায়, তরুণ ব্রিগেড হিসেবে আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। দীর্ঘদিন ধরে ওয়ার্কিং কমিটির কোনও মিটিং হয়নি, জানিনা শেষবার মিটিংয়ে কী হয়েছিল। আমরা সবদিকটি খতিয়ে দেখছি এবং বিসিসিআই ও ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য নিজেদের সেরাটা মেলে ধরার চেষ্টা করব।

মহারাজ আরও বলেন, ‘প্রথমদিন আমি আজ যে কুর্সিতে বসলাম সেখানে এর আগে বহু দিকপালরা বসেছেন। ঠিক এমনটাই ঘটেছিল যখন আমি দেশের অধিনায়ক হয়েছিলাম। সবমিলিয়ে আমার একটা নির্দিষ্ট ভূমিকা রয়েছে, আমার সেরাটা দিয়ে সেটা পালন করার চেষ্টা করব।’