মুম্বই: লকডাউন পরবর্তী সময় প্রথমবারের জন্য বিমানে চড়লেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। গন্তব্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, উপলক্ষ্য অবশ্যই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ। হাতে বাকি মাত্র ১০টা দিন। এমন সময় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে মরুশহরের উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। বুধবার সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে লকডাউন পরবর্তী সময় প্রথমবারের জন্য বিমানে চড়ার অভিজ্ঞতা অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করে নিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

ইন্ডিগোর বিমানে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় সেলফি তুলে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে তা পোস্ট করেছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। ক্যাপশন হিসেবে সৌরভ সেখানে লিখেছেন, ‘গত ৬ মাসে এটাই আমার প্রথম ফ্লাইট। আইপিএলের জন্য গন্তব্য দুবাই…বেপরোয়া জীবন কেমন বদলে গিয়েছে।’ এর আগে রানওয়ে চত্বরে ফেসশিল্ড পরেও সেলফি তোলেন মহারাজ। উল্লেখ্য, টুর্নামেন্ট খেলতে দলগুলো আমিরশাহীর বিভিন্ন শহরে পৌঁছে গিয়েছে অনেক আগেই। এখন পুরোদমে অনুশীলনে নিমজ্জিত কোহলি-ধোনি-রোহিতরা। চলছে টিমে নিজেদের মধ্যে বন্ডিং বিল্ড-আপের পর্ব।

এদিকে প্রথমবারের জন্য পূর্ণাঙ্গ আইপিএল আয়োজনের বিষয়টি আমিরশাহী ক্রিকেট বোর্ডের কাছে দারুণ চ্যালেঞ্জিং। সেই লক্ষ্যে তারা কতোটা প্রস্তুত, তা খতিয়ে দেখতেই ওদেশে উড়ে গেলেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট। যদিও কোভিড আবহে বিদেশের মাটিতে এই কোটিপতি লিগ আয়োজনের কারণে কম ঝক্কি পোহাতে হয়নি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়্যকে। করোনা পরিস্থিতিতে এপ্রিল-মে উইন্ডোয় আইপিএল প্রাথমিকভাবে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর টুর্নামেন্ট আয়োজন ঘিরে নানা জটিলতা তৈরি হয়েছিল। অবশেষে সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ এবং অক্টোবর-নভেম্বর উইন্ডোয় অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপ পিছিয়ে যাওয়ার আইপিএলের ভাগ্য ফেরে।

যদিও এরপর কোভিড পরিস্থিতিতে নিরাপদ ভেন্যু বাছাই করে টুর্নামেন্ট আয়োজনের বিষয়টি ছিল সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং। এক্ষেত্রে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীকে দ্বিতীয়বারের জন্য টুর্নামেন্ট আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তবে এর আগে পূর্ণাঙ্গ টুর্নামেন্ট আয়োজনের অভিজ্ঞতা সেদেশের ক্রিকেট বোর্ডের নেই। এক্ষেত্রে ৫৩ দিনের পূর্ণাঙ্গ আইপিএলের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে আমিরশাহীর তিনটি ভেন্যুকে। দুবাই, আবু ধাবি এবং শারজায় আইপিএলে অংশগ্রহণকারী ৮টি দল তাদের ঘাঁটি গেড়েছে।

৭দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে অনেক আগেই। আপাতত পুরোদমে প্রস্তুতিতে মগ্ন দলগুলি। তবে এরমধ্যে কোভিডও হানা দিয়েছে দু’টি ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্দরমহলে। ২ ক্রিকেটার সহ চেন্নাই সুপার কিংসের ১৩ জন সদস্য এবং দিল্লি ক্যাপিটালসের সহকারী ফিজিওথেরাপিস্ট আক্রান্ত হয়েছেন মারণ ভাইরাসে। বিসিসিআই নির্দেশিত স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রোসিডিওর মেনে জৈব নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে রয়েছে দলগুলি। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে তারা ঠিক কী অবস্থায় রয়েছে, প্রস্তুতিই বা কেমন। সব পর্যালোচনা করে দেখতেই আমিরশাহী রওনা দিলেন মহারাজ।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।