কলকাতা: বৃহস্পতিবারই সিএবি নির্বাচন মনোনয়ন জমা দেওয়ার কথা ছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের। কিন্তু নিয়মের জটিলতায় সেদিন মনোনয়ন জমা দেননি সিএবি প্রেসিডেন্ট৷ শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ে স্বস্তি ফেরায় শনিবার অর্থাৎ শেষ দিন সিএবি নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেবেন সৌরভ ও শাসকগোষ্ঠীর সদস্যরা৷

ওয়ার্কিং কমিটির নির্দেশের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি রাজ্য ক্রিকেট সংস্থা সিওএ-র কাছে আবেদন করে৷ সিএবি-সহ যে ১৮টি ক্রিকেট সংস্থা সিওএ-র নতুন নির্দেশিকার বিরোধিতা করে, তাদের সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখে শুক্রবার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয় যে, সত্তরোর্ধ্বরা পদাধিকারী না-হতে পারলেও তাঁদের ভোটদানের অধিকার থাকবে।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন সিএবি প্রেসিডেন্ট৷ সৌরভ বলেন, ‘সত্তরোর্ধ্ব সদস্যেরা ভোটাধিকার না-পেলে সংস্থা চালানোয় সমস্যা হত। সুতরাং সুপ্রিম কোর্টের এই রায়কে আমরা স্বাগত জানাচ্ছি। আশা করি আর কোনও সমস্যা হবে না।’ সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর স্বস্তি ফিরেছে সিএবি ও তামিলনাড়ু ক্রিকেট সংস্থায় শাসকগোষ্ঠীর বর্ষীয়ান সদস্যদের৷

শোনা যাচ্ছে, সৌরভের সঙ্গে এদিন মনোনয়নপত্র জমা দেন তাঁর গোষ্ঠীর সদস্যরা৷ মনোনয়ন জমা দেবেন সৌরভের দাদা স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়ও। তবে কোন পদের জন্য স্নেহাশিস মনোনয়ন জমা দেবেন, তা এখনও পরিষ্কার নয়। তবে প্রেসিডেন্ট ও যুগ্ম-সচিবের পদে মনোনয়ন জমা দেবেন যথাক্রমে সৌরভ ও অভিষেক ডালমিয়া৷ শোনা যাচ্ছে, প্রেসিডেন্ট ও যুগ্ম-সচিব পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফের সিএবি-র শাসন ক্ষমতা পেতে চলেছেন সৌরভ ও অভিষেক৷

তবে আরও এক যুগ্ম-সচিব পদের মনোনয়ন জমা দিতে চলেছেন টাউন ক্লাবের কর্তা দেবব্রত দাস। যদিও ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদে সমর পালের সঙ্গে লড়াই হতে পারে নরেশ ওঝার। কোষাধ্যক্ষের পদে দেবাশিস গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে লড়াই হতে পারে প্রবীর চক্রবর্তীর৷ যদিও মনোনয়ন জমা দেওয়ার আগে এদিন এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন সৌরভ৷

সিএবি-র মতো সুপ্রিম কোর্টের রায়ে স্বস্তি ফিরেছে তামিলনাড়ু ক্রিকেট সংস্থাতেও৷ সুপ্রিম রায়ে পদাধিকারী হতে না-পারলেও ভোটদানের অধিকার পাচ্ছেন প্রাক্তন বোর্ড প্রেসিডেন্ট তথা একসময়ে ভারতীয় ক্রিকেটে প্রভাবশালী কর্তা নারায়ণস্বামী শ্রীনিবাসন৷ সুতরাং সরাসরি না-হলেও ফের ভারতীয় ক্রিকেটে নিজের প্রভাব খাটাতে পারবেন শ্রীনি৷

গত মঙ্গলবার বিভিন্ন ক্রিকেট সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে টেলি-বৈঠকে আলোচনা করে সিওএ-র নতুন নির্দেশিকার বিরুদ্ধে প্রশ্ন তোলেন শ্রীনিবাসন। শ্রীনির সুরেই প্রতিবাদ জানিয়েছিল সিএবি৷ সুতরাং সুপ্রিম কোর্টের রায়ে সত্তরোর্ধ্বদের ভোটাধিকার প্রয়োগের অধিকারে সিএবি-র সঙ্গে স্বস্তি ফিরেছে তামিলনাড়ু ক্রিকেট সংস্থাতেও৷