করাচি: বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরে ফের ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ শুরুর স্বপ্ন দেখছেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক রশিদ লতিফ৷

২০০৪-এ তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর উদ্যোগে সৌরভের নেতৃত্বে পাকিস্তানের মাটিতে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলেছিল ভারত৷ সেবার টেস্ট সিরিজ জেতার পাশাপাশি পাকিস্তানের মন জয় করে ফিরেছিল টিম ইন্ডিয়া৷ তারপর একবার মাত্র পাকিস্তান সফরে গিয়েছিল ভারত৷ ২০০৫-০৬ মরশুমে রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বে ভারত পাকিস্তানে টেস্ট সিরিজ খেলতে গেলেও সিরিজ হেরেছিল দ্রাবিড়ের ভারত৷

গত অক্টোবরে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের প্রেসিডেন্টের চেয়ারে বসেছেন সৌরভ৷ এবার সৌরভের হাত ধরেই ফের ভারত-পাক দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ শুরুর স্বপ্ন দেখছে পাকিস্তান৷ লতিফ বলেন, ‘২০০৪-এ যখন বিসিসিআই পাকিস্তান সফর করতে রাজি হয়নি, তখন সৌরভ বিসিসিআই ও প্লেয়ারদের বিরুদ্ধে পাক সফরে রাজি করিয়েছিল৷ এটা ভারতের স্মরণীয় পাক সফর ছিল৷ দুর্দান্ত লড়াইয়ের পর ভারত সিরিজ জিতেছিল৷’

সৌরভই পারবে ফের ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ শুরু করতে৷ এমনটাই মনে করেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক৷ ‘দ্য নেশন’-কে লতিফ জানিয়েছেন, ক্রিকেটার এবং বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে সৌরভ পিসিবি ও এহসান মানিকে সাহায্য করতে পারে৷’ ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ চালু না-হলেও দু’দেশের সম্পর্কের উন্নতি সম্ভব নয় বলে জানান লতিফ৷

ভারত-পাকিস্তান শেষবার দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলছে ২০০৭-০৮ মরশুমে৷ ভারতের মাটিতে সেবার পাঁচ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ খেলে পাকিস্তান৷ ৩-২ সিরিজ জিতেছিল ভারত৷ সেটাই শেষ দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ৷ তারপর দুই দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে ভারত-পাকিস্তান দ্বি-পাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ বন্ধ হয়ে যায়৷ কেবলমাত্র আইসিসি টুর্নামেন্টেই দুই দেশ মুখোমুখি হয়৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।