কলকাতা : তিনি মহারাজ হতে পারেন, কিন্তু এভাবেভবে বসে থাকা তার স্বভাবে নেই। এই তো ক’দিন আগেও একের পর এক দুস্থের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। একের পর এক জায়গায় যাচ্ছিলেন। এখনও কাজ চলছে তার সাহায্যের কিন্তু দিনের শেষে এসে তিনি তার নিজের ক্রিকেট সংক্রান্ত কাজ থেকে দূরে। ব্যাট বল তুলে রাখলেও মহারাজ তো এখন ভারতীয় ক্রিকেটের মাথায় বসে রয়েছেন। এভাবে বসে থাকতে থাকতে তিনিও কোথাও যেন বিরক্ত। দিনের শেষে তিনিও মানুষ, তার নয়া ইনস্টাগ্রাম পোস্টে স্পস্ট।

তিনি বুধবার রাতে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লিখেছেন, আজ তারাতারি শুয়ে পড়ুন, কাল সকালে তাড়াতাড়ি উঠে আবার……বিশ্রাম নিতে হবে। অবসর নেওয়ার পরেও তিনি এতটা অবসর সময় মনে হয় শেষ কবে কাটিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় নিজেও হয়তো মনে করতে পারছেন না। অনেকের মতো তিনিও হয়তো কোথাও অস্বস্তিতে রয়েছেন এই দীর্ঘ অবসরে। কী করে সময় কাটাবেন সেটাও হয়তো ভেবে পাচ্ছেন না। কত ফেসবুকে পোস্ট করা যায়, কতই বা বাড়ির চার দেওয়ালের দিকে তাকিয়ে সিলিং গোনা যায়? ফ্যামিলি টাইম ভালো কিন্তু এত বড় ফ্যামিলি ম্যান সৌরভ কি করে হবেন সেটাও সম্ভবত ভেবে পাচ্ছেন না। বাড়ি থেকে লন, লন থেকে বাড়ি। নেই কাজ, খই ভেজে ভেজেও সম্ভবত বিরক্ত হয়ে গিয়েছেন মহারাজ। অতঃপর সোশ্যাল মাধ্যমে এমন পোস্ট।

করোনা যুদ্ধে এ পর্যন্ত সৌরভ ইডেন গার্ডেনকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বানানোর প্রস্তাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীকে। তারপর করোনার কারণে রাজ্যে লকডাউনে রুটি-রুজি বন্ধ হওয়ায় দরিদ্র মানুষদের মুখে অন্ন তুলে দিতে আগেই রাজ্য সরকারকে ৫০ লক্ষ টাকার চাল দান করেছেন সৌরভ। বেলুড় মঠে দিয়ে দরিদ্র মানুষদের মুখে এই জাতীয় বিপর্যয়ের সময়ে অন্নের যোগান তুলে দিতে ২০০০ কেজি চাল দান করেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। এর আগে মোদীর ত্রাণ তহবিলে করোনা মোকাবিলার জন্য সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআই ৫১ কোটি টাকা দেওয়ার ঘোষণা করে।

এদিকে , করোনা মোকাবিলায় দেশে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হতে পারে, সর্বদল বৈঠকে এমন ইঙ্গিতই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দিয়েছেন বলে খবর। বিজেডি নেতা পিনাকি মিশ্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, ”এদিনের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী কার্যত স্পষ্ট ভাষায় জানিয়েছেন, একবারে লকডাউন তোলা হবে না। তিনি এও বলেছেন যে, প্রাক করোনা ও করোনা পরবর্তী সময় এক নয়”।