কলকাতা : আজ শুক্রবার মুক্তি পেতে চলেছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় অভিনীত শেষ ছবি ‘সময়’। ছবিরপরিচালক শ্যামল বসু। নভেম্বরে বাংলা সিনেমার কিংবদন্তী অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত হন। তার আগে এই কাজ শেষ করে গিয়েছিলেন তিনি। এবার তা দর্শকদের সামনে আসছে।

এর আগে প্রয়াত বিখ্যাত বলিউড অভিনেতা ইরফান খান অভিনীত শেষ ছবি মুক্তি পায় ২০২০ সালে। ছবির নাম ছিল ‘অংরেজি মিডিয়াম’। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নারিয়ে দিয়েছিল বলিউডকে। তাঁর শেষ ছবি তুমুল জনপ্রিয়তা পায় ওটিটি প্লাটফর্মে মুক্তি পাওয়ার পর। ছবির নাম ছিল ‘দিল বেচারা’। এবার বাঙালির কিংবদন্তী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় অভিনীত শেষ ছবি ‘সময় আসছে দর্শকের সামনে।

শ্যামল বসু আগেও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বেশ কয়েকটি ছবিতে কাজ করেছিলেন। জানা গিয়েছে, লকডাউনের সময় কাটিয়ে শুধুমাত্র এই ছবির জন্যই তিনি শুটিং ফ্লোরে ফিরে এসেছিলেন। ২০২০’র ৫ জুলাই শুটিং করেন তিনি। এরপর পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের পরিচালনায় ‘‌অভিযান’‌ সিনেমারও শুটিং করেন। আবার ২৮ আগস্ট ‘সময়’ সিনেমার শুটিং শেষ করেছিলেন। তারপর শুধু ‘আমি সৌমিত্র’ তথ্যচিত্রের শুটিং করছিলেন।

আর কোনও সিনেমার শুটিং করতে পারেননি কিংবদন্তি অভিনেতা। শুটিংয়ের পরপরই তিনি জানিয়েছিলেন যে তিনি অসুস্থ বোধ করছেন। ডাবিংয়ের কাজ দ্রুত শেষ করতে চান। সেইমতো সৌমিত্র কাজও শুরু করে দিয়ে তা শেষ করেন। এরপরই ৫ অক্টোবর তাঁর করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বেলভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন একমাসের বেশি সময়। এরপর ১৫ নভেম্বর তাঁর মৃত্যু হয়।

এই ছবিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় দাদুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন। বেকার ও মাদকাসক্ত নাতিকে কীভাবে দাদু জীবনের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনেন, সেটাই দেখা যাবে এই ছবিতে। শুক্রবার পিভিআর ডায়মন্ড প্লাজায় হবে ‘সময়’-এর প্রিমিয়র। সেখানে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের স্মৃতিচারণা করবেন বিশিষ্টরা। করোনা আক্রান্ত সৌমিত্রকন্যা পৌলমী বসু। তাই তিনি উপস্থিত থাকতে পারছেন না বলে জানা গিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।