মুম্বই: হকির সঙ্গে তাঁর ছোটবেলা থেকেই বিশেষ স্বদভাব ছিল না৷ তবে একজনের প্রতি দুর্বল হয়েই প্রেমেই পড়েন হকি ব্যাটের ওপর৷ কারণ সেও যে একজন খেলোয়ার৷ এরপরেই হকির ওপর গভীর ভালোবাসা৷ যার জন্য তাঁর কোমরে বুলেট লাগা সত্ত্বেও দুবছর পর ন্যাশনাল টিমে কামব্যাক করেন তিনি৷

হয়তো বুঝতেই পেরেছেন কথা হচ্ছে অর্জুন পুরস্কারপ্রাপ্ত হকি খেলোয়াড় সন্দীপ সিং-কে নিয়ে৷ তাঁর জীবনী নিয়ে যে বায়োপিক হচ্ছে তা নিশ্চয় সকলেরই জানা৷ অবশেষে সোমবার মুক্তি পেল ‘সুরমা’-র ট্রেলার৷ মুখ্যচরিত্রে অর্থাৎ সন্দীপ সিং-য়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিলজিৎ দোসাঞ্জ৷ বিপরীতে রয়েছেন অভিনেত্রী তাপসী পান্নু৷ এছাড়াও রয়েছেন অঙ্গদ বেদী৷ পরিচালনা সাদ আলি৷ মুক্তির পর এখনও পর্যন্ত ৫০ হাজারের মতো মানুষ দেখে ফেলেছে ট্রেলারটি৷ ছবিটি মুক্তি পাবে ১৩ই জুলাই৷

আরও পড়ুন: খুব শিগগিরি ছোট পর্দায় আসছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়

ট্রেলারে দেখা যায় ছোটবেলায় সন্দীপ ভয় পেতেন হকি খেলতে, কারণ তাঁ ট্রেনার তাঁকে খুব মারত৷ কিন্তু যখন বড় হয়, তখন তাঁর চিন্তাভাবনা ধীরে ধীরে বদলাতে থাকে৷ সৌজন্যে তাঁর স্ত্রী৷ তিনিও একজন স্টেট লেভেল খেলোয়াড় ছিলেন৷ তাঁর প্রেমে পড়েই হকির মাঠে সন্দীপ প্রথম পা দেয়৷ এরপর একসঙ্গে ট্রেনিংও করেন৷ কিন্তু দুজনে মাঝে বাঁধা হয়ে দাড়ায় মেয়েটির দাদা৷ তাঁর কাছে সন্দীপ চ্যালেঞ্জ করেন যে সে জাতীয় দলের হয়ে খেলবে৷ অতঃপর সন্দীপ তাঁর দাদা বিক্রমজিৎ সিং-য়ের কাছে৷ দাদার কাছে দীর্ঘদিন ট্রেনিং নেওয়ার পর জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পান তিনি৷

২০০৬ সালে তাঁর নেতৃত্বে জার্মানিতে বিশ্বকাপ খেলার টিম পাঠায় ভারত৷ কিন্তু মাঝপথেই ঘটে বিপত্তি৷ শতাব্দী এক্সপ্রেসে আরপিএফের বন্দুক থেকে হঠাৎই আকস্মিকভাবে গুলি বেরিয়ে সন্দীপের কোমরে লাগে৷ চিকিৎসকরা জবাব দেয় সে আর কোনদিনও উঠে দাড়াতে পাড়বে না৷ সারাজীবনই হুইল চেয়ারে কাটাতে হবে৷ কিন্তু তাঁর জেদ, একাগ্রতা এবং মনসংযোগের জন্য ফের তিনি গ্র্যান্ড কামব্যাক করেন ন্যাশনাল টিমে৷ এবং ফের তিনি দেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন৷

আরও পড়ুন: প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্নার জুটিকে ছাপিয়ে গেল ভুটু-চিনির বন্ধুত্ব

ট্রেলার দেখার পর নিজেই অবাক হয়ে পড়েন এই সন্দীপ সিং৷ একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, “আমি এই সিনেমাটা দিয়ে যুবসমাজকে একটাই বার্তা দিতে চাই যে যদি তুমি সত্যিই নিজের স্বপ্নপূরণ করতে চাও তাহলে কোন বাঁধাই তোমায় আটকাতে পারবেন৷ আমায় চিকিৎসকরা বলেছিল যে আমি কোনদিনও মাঠে ফিরে যেতে পারব না৷ কিন্তু আমি হকি হাতে দুই পায়ে দাড়াতে পেরেছি৷ আমার মনে হয় এই স্টোরিটা অনেককেই লড়াই করতে শেখাবে৷”

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।