মস্কো: ভারত ও রাসিয়ার কূটনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিন ধরেই বেশ মজবুত। সামরিক ক্ষেত্রেও দুই দেশকে যৌথভাবে কাজ করতে দেখা গিয়েছে। এবার একসঙ্গে কালাশনিকভ তৈরিভকরার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই উদ্যোগের ফলে দুই দেশের সামরিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতা এক ননতুন পর্যায়ে পৌঁছে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতেই রয়েছে রাশিয়ার সঙ্গে যযৌথ উদ্যোগে তৈরি অস্ত্র কারখানা। আমেঠিতে রয়েছে সেই Indo-Russian Rifles Private Limited, যার সঙ্গে যুক্ত ভারতের Ordnance Factories Board (OFB) এবং রাশিয়ার Rosonboron Exports ও Concern Kalashnikov. এতে ৫০.৫ শতাংশ শেয়ার ভারতের ও রাশিয়ার ৪৯.৫ শতাংশ।

প্রধানমন্ত্রী মোদী মনে করেন, যৌথভাবে এই অস্ত্র তৈরি কেবল ভারত-রাশিয়ার সম্পর্কেই মজবুত করবে না, সঙ্গে ভারতের ইন্ডাস্ট্রিকেও উৎসাহ দেবে। মোদী এদিন উল্লেখ করেন, বিশ্বাসের উপর ভিত্তি করেই ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সম্পর্ক এক অন্য পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে তিনি।

এদিকে, জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে ভারতের পদক্ষেপকে সমর্থন জানিয়েছে রাশিয়া। তারা বলেছে, ভারতের সংবিধানের কাঠামো মতোই পদক্ষেপ করা হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীরে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “যখনই প্রয়োজন হয়েছে, যেখানেই প্রয়োজন হয়েছে, রাশিয়া ও ভারত, একে অপরের পাশে ছিল, আছে এবং থাকবে”। তিনি বলেন, “আমাদের সহযোগিতা শুধুমাত্র আঞ্চলিক নয়, আন্তর্জাতিক এবং বিশ্বমানের, সুমেরু এবং দক্ষিণ মেরু অঞ্চলেও আমরা সহযোগিতা করছি”।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁদের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে,বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, এছাড়াওও তেল ও গ্যাস, পরমাণু শক্তি, প্রতিরক্ষা নিয়েও।