মুম্বই: করোনা আবহে পরিযায়ী শ্রমিকদের মসিহার ভূমিকা পালন করেছেন অভিনেতা সোনু সুদ। লকডাউন চলার জন্য বিভিন্ন রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকরা আটকে পড়েছিলেন। ঘরে ফিরতে পারছিলেন না তাঁরা। তখন তাঁদের ঘরে ফেরানোর দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন সোনু। হাজার হাজার শ্রমিককে এই বিকল অবস্থার মধ্যে বাড়ি ফিরিয়েছেন তিনি। কখনো বাস বা ট্রেন ভাড়া করে। কখনো আবার ভাড়া করেছেন গোটা একটা বিমান। এবার এই পুরো অভিজ্ঞতার কথা নিয়ে একটি বই লিখতে চলেছেন সোনু সুদ।

সোনু জানিয়েছেন, গত সাড়ে তিন মাসে আমার জীবন অনেকটা পরিবর্তন হয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে দিনে ১৬-১৮ ঘন্টা সময় কাটিয়েছি এবং তাঁদের যন্ত্রণা নিজের চোখে দেখে ভাগ করে নিয়েছি। ওঁরা যখন বাড়ি ফেরার জন্য রওনা দিতেন আমার হৃদয় আনন্দে ও স্বস্তিতে ভরে উঠত। ওঁদের মুখের হাসি এবং আনন্দাশ্রু আমার জীবনের সবচেয়ে বিশেষ অভিজ্ঞতা। আমি প্রতিজ্ঞা করেছিলাম এমন একজন পরিযায়ী শ্রমিক থাকবেন না যিনি তাঁর ঘরে ফিরতে পারেননি। আমি শেষ পর্যন্ত তাঁদের জন্য কাজ করে যাব।

সোনু আরো বলছেন, আমি বিশ্বাস করি আমি এই কারণেই এই শহরে এসেছি। এটাই আমার উদ্দেশ্য। পরিযায়ী শ্রমিকদের আমি যে সাহায্য করতে পেরেছি তার জন্য আমি ভগবানকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি থাকি মুম্বাইতে। কিন্তু এই বিষয়টার পর থেকে যেন আমার এক একটা অংশ উত্তর প্রদেশ, বিহার, ঝাড়খন্ড, অসম, উত্তরাখন্ড-সহ বিভিন্ন রাজ্যের গ্রামেও বাস করে। এই জায়গাগুলিতে আমার প্রচুর নতুন বন্ধু তৈরি হয়েছে এবং যোগাযোগ বেড়েছে। আমি এই অভিজ্ঞতা গুলিকে এক জায়গায় করে একটি বইয়ে ধরে রাখতে চাই।

জানা গিয়েছে বইটি পেঙ্গুইন রান্ডম হাউস ইন্ডিয়া থেকে প্রকাশিত হবে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।