নিউ দিল্লি: দেশ জুড়ে বাড়ছে ধর্ষণের সংখ্যা। শেষ কয়েক সপ্তাহে সামনে এসেছে অসংখ্য ধর্ষণের ঘটনা। কীভাবে এই সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে তা নিয়ে চিন্তিত সারা দেশ। একই রকম চিন্তিত কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী। সূত্র জানাচ্ছে, দেশজুড়ে মহিলাদের ওপর যেভাবে অত্যাচার বৃদ্ধি পাচ্ছে, তার জেরে জন্মদিন পালন করবেন না বলে জানিয়েছেন সনিয়া গান্ধী।

সোমবার সনিয়া গান্ধীর জন্মদিন। এবছরে ৭৩-এ পা রাখবেন তিনি। একটি সূত্র জানাচ্ছে, দেশজুড়ে মহিলাদের ওপর হওয়া অত্যাচারের ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ায় রীতিমতো ব্যাথিত কংগ্রেস সভানেত্রী। আর তাই তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবছর নিজের জন্মদিন পালন করবেন না।

হায়দরাবাদে পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ ও নৃশংস ভাবে খুন এবং উন্নাও ধর্ষিতার মৃত্যুর পরেই সনিয়া গান্ধী এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। তার এই সিদ্ধান্তে কংগ্রেসের সকলেই সমর্থন জানিয়েছেন বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন – এবার চিরশত্রু বিজেপির সঙ্গে পঞ্চায়েতে জোট গঠন সিপিএমের

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরেই তেলেঙ্গানা ধর্ষণ-কাণ্ডে উত্তাল গোটা দেশ। অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি জানানো হচ্ছিল সব মহল থেকেই। এমনকি তাদের মৃত্যুদণ্ডের দাবি উঠেছিল বহু মহল থেকেই। নভেম্বরের শেষ সপ্তাহের বৃহস্পতিবার হায়দরাবাদের অনতিদূরে শাদনগরে তরুণী চিকিৎসকের দগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়।পুলিশের অনুমান ছিল ধর্ষণ করে ওই তরুণীকে খুন করা হয় প্রথমে। তার পর তাঁর দেহ পোড়ানো হয়। যদিও পরে পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় চার অভিযুক্তের। কিন্তু তাতে একটুও কমেনি ধর্ষণের সংখ্যা। বরং যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন বাড়ছে এই সংখ্যা।

এমতাবস্থায় সনিয়া গান্ধীর এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছে গান্ধী পরিবার। সূত্রের খবর এমনটাই। জানা যাচ্ছে, সোমবার উন্নাও, হায়দরাবাদ-এর ঘটনার জন্য শোকদিবসও পালন করতে পারে কংগ্রেস।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ