নয়াদিল্লি: অসহিষ্ণুতার প্রতিবাদে এবার রাজপথে কংগ্রেস। মঙ্গলবার বিকেলে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী এবং সহ সভাপতি রাহুল গান্ধির নেতৃত্বে একটি মিছিল বের করে কংগ্রেস। সংসদ ভবন থেকে রাষ্ট্রপতি ভবন পর্যন্ত এই মিছিলে কংগ্রেস নেতা-নেত্রী, সাংসদ থেকে শুরু করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রতিভা পাটিলও পা মেলান। যদিও মিছিলের সদস্যসংখ্যা বেঁধে দেয় পুলিশ। আবার এই মিছিলের কারণ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির প্রশ্ন, ‘অসহিষ্ণুতা কোথায়?’ তবে সমস্ত প্রশ্ন উপেক্ষা করে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে অসহিষ্ণুতার প্রতিবাদে একটি স্মারকলিপি তুলে দেন কংগ্রেস নেতৃত্ব।

অসহিষ্ণুতার প্রতিবাদে এই মিছিলের কথা আগেই জানিয়েছিল কংগ্রেস। তবুও এদিন মিছিলের সদস্যসংখ্যা বেঁধে দেওয়া হয়। ১২৫ জনের বেশি লোক মিছিলে হাঁটতে পারবে না বলে নির্দেশ দেয় পুলিশ। এই ঘটনায় পুলিশের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কংগ্রেস নেতৃত্ব। যদিও রাষ্ট্রপতি ভবনের নিরাপত্তার খাতিরেই মিছিলের সদস্যসংখ্যা বেঁধে দেওয়া হল বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। কিন্তু এই যুক্তি মানতে নারাজ কংগ্রেস। সরকার মিছিল করতে দিতে চায় না বলে অভিযোগ করেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। তবে পুলিশের অনুমতি নিয়েই কংগ্রেস শাসিত প্রতিটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা এদিনের মিছিলে সামিল হন। মিছিল শেষে সোনিয়া, রাহুল সহ কংগ্রেসের ১১ জন নেতা রাষ্ট্রপতি ভবনের ভিতরে যান। তাঁরা রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন এবং দেশজুড়ে যে সাম্প্রদায়িক অসহিষ্ণুতার বাতাবরণ সৃষ্টি হয়েছে, তার প্রতিবাদে একটি স্মারকলিপি রাষ্ট্রপতির হাতে তুলে দেন।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।