মুম্বই : প্রায় বহুদিন ধরেই এই মারণ রোগের সঙ্গে লড়াই করছেন অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে। নিজের এক গোছা সুন্দর চুল কেটে ফেলার বেদনাদায়ক ভিডিও আগেই শেয়ার করেছিলেন তিনি। কেমোথেরাপির কারণে তাঁর সব চুল পড়ে গিয়েছে৷ সেই ছবিও নির্দ্বিধায় শেয়ার করেছিলেন সেই ছবি।

কিছুদিন আগেই তাঁর স্বামী গোল্ডি বেহল জানিয়েছিলেন, সোনালি ‘মেটাস্ট্যাটিক ক্যান্সারে’ আক্রান্ত। কিন্তু তিনি এখন সুস্থ অনেকটাই। চিকিৎসায় যথেষ্ট সাড়া মিলেছে। এখন অনেকটাই ভালো আছেন আগের থেকে। মনের অদম্য সাহস নিয়ে এগিয়ে চলেছেন অভিনেত্রী। তাঁর চিকিত্সা চলছে বিদেশে।

সম্প্রতি সোনালির একটি পোস্টে আবারও শোকাচ্ছন্ন হয়ে গেল টিনসেল৷ ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টে তিনি জানিয়েছেন যে কেমোথেরাপির জন্য তাঁর চোখের দৃষ্টি কম হয়ে আসছিল৷

কেমোথেরাপির নানা রকমের সাইড এফেক্টস হয় তা সকলেই জানে৷ তেমনই এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলেন অভিনেত্রী৷ তাঁর দৃষ্টিশক্তি কমতে শুরু করে৷ পরিষ্কার কিছু দেখতে পাচ্ছিলেন না৷ বইও পড়তেও অসুবিধা হত তাঁর৷ যদিও পরে সব ঠিক হয়ে যায়৷

খুব শীঘ্রই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশা রাখছেন পরিবারের সদস্যরা। অন্যদিকে তাঁর ননদ জানিয়েছিলেন, মনের জোরে লড়ে যাচ্ছেন সোনালি। আশাকরি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবে। তবে কতদিন চলবে এই চিকিৎসা, কতদিনই বা লাগবে পুরোপুরি ঠিক হতে, তা স্পষ্ট জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত, জুলাই মাসের প্রথম দিকে মারণরোগে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে৷ নিজের অফিসিয়াল স্টেটমেন্টে সবটা প্রকাশ্যে এনেছিলেন তিনি৷ তাঁর এই অসুস্থতার কথা খোলসা করে একটি পোস্ট করেছিলেন সোনালি৷

 

পোস্টে লিখেছিলেন, “যখন আমরা খারাপ কিছু আশা করি না, তখনই জীবন তোমাকে চমক দিয়ে বসে৷ সম্প্রতি আমি হাই গ্রেড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছি৷ চিকিৎসাও শুরু হয়ে গিয়েছে৷ বেশ কয়েকদিন আগে শরীরে ব্যাথা অনুভব করছিলাম৷ ডাক্তারের কাছে যেতেই চিকিৎসা শুরু হয়৷ পরীক্ষা নিরীক্ষা হওয়ার পর জানতে পারি আমি ক্যান্সারে আক্রান্ত৷ আমার পরিবার এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ৷ তাঁরা আমার পাশে যেভাবে এসে দাঁড়িয়েছেন, আমায় যেভাবে আমার সহযোগিতা করেছেন, তা শব্দে ব্যক্ত করা কঠিন৷ আমি খুবই ভাগ্যবান যে আমি এমন মানুষদের আমার পাশে পেয়েছি৷ তাঁদের প্রত্যেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি৷”