স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ : পারিবারিক অশান্তির জেরে জামাইয়ের হাতে খুন হল শ্বশুর। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ জেলার চাঁচল থানার দীঘা বসতপুর গ্রামে। মৃত শ্বশুরের নাম রব্বুল হোসেন(৬৫)। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, চাঁচল থানার হাজাতপুর গ্রামের বাসিন্দা মনসুর আলীর সঙ্গে বিয়ে হয় বসতপুর গ্রামের বাসিন্দা রব্বুল হোসেনের মেয়ের। বিয়ের পর থেকেই বাপের বাড়িতে থাকত সে।

জানা গিয়েছে, বিয়ের পর থেকে শ্বশুরবাড়ির অশান্তিতে অতিষ্ঠ হয়ে বাপের বাড়িতে চলে আসে রব্বুল হোসেনের মেয়ে। পারিবারিক অশান্তির জেরে এত দিন ধরে বাপের বাড়িতেই রয়েছে নিহত ব্যক্তির মেয়ে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরে পারিবারিক বিষয় এবং জমি সংক্রান্ত বিবাদ নিয়ে ঝামেলা চলছিল তাঁদের দুই পরিবারের মধ্যে। মৃতের বাড়ির লোক পুলিশকে জানিয়েছেন যে, বুধবার রাতে বাড়িতে একাই ছিল রব্বুল। এই সুযোগে তাকে ঘরে একা পেয়ে খুন করে তাঁদের জামাই মনসুর আলী। শুধু তাই নয় শ্বশুরের মৃত্যু নিশ্চিত করতে অভিযুক্ত জামাই ধারালো অস্ত্র দিয়ে রব্বুলের শ্বাসনালী কেটে দেয় বলে পরিবার এর লোকেরা অভিযোগ করেছেন।

রাত-দুপুরে ঘরে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শ্বশুরকে খুন করার ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছে, খুনের ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত মনসুর ফেরার হয়ে গিয়েছে।

এই ঘটনায় রব্বুল হোসেনের পরিবারের পক্ষ থেকে স্থানীয় চাঁচল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ফেরার অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে চাঁচল থানার পুলিশ। পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে মৃতের পরিবারকে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, একটি খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে ওই পরিবারের তরফে। সবদিক খতিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।