সুভাষ বৈদ্য, কলকাতা: লোকসভা ভোটের আগে থেকেই অশান্ত ভাটপাড়া৷ অশান্ত ভাটপাড়াকে শান্ত করতে ঘটনাস্থলে ছুটে যেতে হল রাজ্য সরকারের ডিজিকে৷ ফের ১৪৪ ধারা জারি করতে হল৷ মোতায়েন রয়েছে র‍্যাফ৷ তা নিয়ে এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন ভাটপাড়ার ভাইস চেয়ারম্যান সোমনাথ তালুকদার৷ গত সপ্তাহেও তিনি তৃণমূলের সঙ্গেই ছিলেন।

আরও পড়ুন- অনটনের জেরে ঘুষ পাননি নার্স, বাধ্য হয়ে রাস্তাতেই প্রসব মহিলার

বৃহস্পতিবার ভাটপাড়ায় একটি পুলিশ ফাঁড়িকে থানায় পরিণত করে তার উদ্বোধন করার কথা ছিল৷ আর তাকে ঘিরে এলাকায় চলল গুলি৷ গুলিবিদ্ধ হয়ে এখনও পর্যন্ত দু’জনের মৃত্যু হয়েছে৷ আহত বেশ কয়েকজন৷ ব্যাপক বোমাবাজিরও অভিযোগ৷ এই প্রসঙ্গে ভাটপাড়ার পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান সোমনাথ তালুকদার কলকাতা২৪X৭ কে জানান, ভারতীয় জনতা পার্টির উত্থানে প্রশাসন আজকে দিশেহারা৷ সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা দিতে প্রশাসন ব্যর্থ৷ পুরসভার গেটে বোম মারা হচ্ছে৷ পুলিশ নিশ্চুপ৷ পুরসভার কোনও উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে না৷

আরও পড়ুন- ২০২১ এর বিধানসভায় বিজেপিকে রুখতে সোশ্যাল মিডিয়াই ‘অস্ত্র’ তৃণমূলের

এদিন পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে নবান্নে জরুরি বৈঠকের নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তড়িঘড়ি বৈঠকে বসেন প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্তারা৷ উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, রাজ্য পুলিশের ডিজি, এডিজি (আইন শৃঙ্খলা) প্রমুখ৷ বৈঠক শেষে ফের ভাটপাড়ায় ছুটে যান ডিজি বিরেন্দ্র৷

রাজ্যের আইনশৃঙ্খনা নিয়ে ভাটপাড়ার ভাইস চেয়ারম্যান সোমনাথ তালুকদারের আরও অভিযোগ, রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হলেন মুখ্যমন্ত্রী নিজে৷ সেখানে একটা ভাটপাড়াকে তিনি শান্ত করতে পারছেন না৷ পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসনিক ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে তার প্রমাণ হচ্ছে ভাটপাড়া৷ এই ঘটনায় তৃণমূলের জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছেন, এটা বিজেপির গেম প্ল্যান৷ তার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন তাহলে বিজেপির পরিকল্পনার কাছে প্রশাসন ব্যর্থ হয়েছে এটা ওরা স্বীকার করুক৷ আসলে এদের অবস্থা দিশেহারা নায়কের মত হয়েছে৷

আরও পড়ুন- হার মেনে নিতে পারছেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: বিস্ফোরক মুকুল

গুলিবিদ্ধ হয়ে যাদের মৃত হয়েছে তারা হলেন, রামবাবু সাউ এবং ধরমবীর সাউ৷ এছাড়া আরও বেশ কয়েকজন বোমা ও গুলিতে আহত হয়েছেন৷ স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশের গুলিতেই এদের মৃত্যু হয়েছে৷ অপরদিকে পুলিশের দাবি,পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ শূন্যে ১০ রাউন্ড চালিয়েছে৷ তবে ঘটনায় আহত হয়েছেন কয়েকজন পুলিশ কর্মীও৷