প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: গায়ের জোরে সব হয় না৷ মুর্শিদাবাদের মানুষের মন জয় করতে পারেননি আপনি৷ তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণের পাল্টা জবাব দিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷

রাজ্যে কংগ্রেসের সংগঠন তলানিতে ঠেকলেও মুর্শিদাবাদে নিজের দাপট ধরে রেখেছেন অধীর চৌধুরীর৷তাঁর গড় দখল করতে এবার আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের ঘাঁটি মুর্শিদাবাদে গিয়ে কংগ্রেসকে কড়া আক্রমণ করেন তিনি৷বলেন, “বহরমপুরে কংগ্রেসকে যদি কেউ তৈরি করে থাকে তাহলে দায়িত্ব নিয়ে বলছি আমি করেছি৷১৯৯৮ সালে তৃণমূল তৈরি হল৷ আমার ছবি দেখিয়ে বলত, ও তো কংগ্রেসের সঙ্গেই রয়েছে৷ মালদহ-মুর্শিদাবাদে আমরা পিঠিয়ে থাকলেও এবার আমরা এখানে জিতব৷”

মমতার এই মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে শনিবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, “আপনার এই কথা আব্দুস সাত্তারের আত্মাকে ব্যাথিত করল৷আপনি কংগ্রেস ভেঙেছেন, কংগ্রেস গড়েননি৷আপনি জেলা পরিষদ, পঞ্চায়েত, পুরসভা গায়ের জোরে দখল করেছেন৷কিন্তু মুর্শিদাবাদের মানুষের মন জয় করতে পারেননি৷এর জবাব ভোটে আপনি পাবেন৷”

সেদিন অধীর গড়ে দাঁড়িয়েই অধীর চৌধুরীকে চরম আক্রমণ করেছিলেন মমতা৷ নাম না করে অধীরকে বলেছিলেন, “সংসদে দাঁড়িয়ে তৃণমূলকে চোর বলেছেন, আর আপনি নিজে ডাকাতদের সর্দার৷”এমনকি অধীর চৌধুরীর ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও কটাক্ষ করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ এক্ষেত্রেও জবাব দিয়েছেন সোমেন মিত্র৷ তিনি বলেন, “অধীর চৌধুরী কিংবা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের নামে ব্যক্তিগত কুৎসা আপনি করতে পারেন কিন্তু কংগ্রেস কোনও ব্যক্তিগত কুৎসা করে না৷”

উল্লেখ্য, জঙ্গিপুরের প্রচারে গিয়ে নাম না করে প্কার্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন৷ বলেন, “কয়েকজন আরএসএসের দালাল এখানে কংগ্রেস প্রার্থীকে জেতাতে টাকা ছড়াচ্ছে৷ সবাই নজর রাখুন৷”এর জবাবে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেন, “আরএসএসের মদতে গুজরাত দাঙ্গার সময় বিজেপি সরকারের রেলমন্ত্রী তো আপনি ছিলেন৷ তখন কেন পদত্যাগ করলেন না৷আসলে মোদী- মমতা দু-জনেই মেরুকরণের রাজনীতি করছেন৷”