প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: ২০ টি শ্রমিক সংগঠনের ডাকে কেন্দ্রের একগুচ্ছ জন বিরোধী কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে বনধ চলছে৷ তবে এই বনধকে সমর্থন করেনি তৃণমূল কংগ্রেস৷ যদিও এর আগে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যুতে সরব হতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে৷ কিন্তু কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বনধকে যখন বিজেপির সমস্ত বিরোধী দল সমর্থন করছে, তখন তৃণমূল বনধ ব্যর্থ করার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসনকে ৷

বনধ ইস্যুতে এবার তৃণমূল কংগ্রেস তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনায় মুখর হলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷ মঙ্গলবার উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুরে বাম কংগ্রেস যৌথ কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র জানান, তৃণমূল কংগ্রেস এখন দ্বিচারিতা করছে৷

এনআরসি, সিএএ এবং এনপিআর বাতিল সহ যে এক গুচ্ছ জনবিরোধী কেন্দ্রীয় নীতির প্রতিবাদে বাম কংগ্রেস জোট সহ দেশের ২০ টি ট্রেড ইউনিয়নের ডাকে দেশ জুড়ে সাধারন ধর্মঘটের চলছে৷ এই ধর্মঘটের বিরোধীতা করছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ কিন্তু বনধ প্রসঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, কোন ভাবেই ধর্মঘট করা চলবে না, প্রশাসনকে কড়া হাতে ধর্মঘটের বিরুদ্ধে জনজীবন স্বাভাবিক রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি ।

যে সব ইস্যুতে দেশ জুড়ে এই ধর্মঘট চলছে, সেই ইস্যুকে সমর্থন করছে তৃণমূল৷ তৃণমূলের এই নীতিরই তীব্র সমালোচনা করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷ মঙ্গলবার উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর প্রশাসনিক ভবন অভিযানে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, বন্ধ নিয়ে দ্বিচারিতা করছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

একদিকে বলছেন এনআরসি এবং সিএএ মানবেন না৷ আবার এই ইস্যুতে আমাদের বনধকে ব্যর্থ করার নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি ইস্যুকে সমর্থন করছেন, কিন্তু বনধকে সমর্থন করছেন না । এটা দ্বিচারিতা তৃণমূলের৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফ্যাসিস্টদের নায়কদের কর্মকাণ্ডের তীব্র সমালোচনা করছেন, আবার রাজীব কুমারকে বাঁচাতে দিল্লী গিয়ে ওই ফ্যাসিস্টদের নায়কদের সঙ্গে বৈঠক করে আসছেন । এগুলোই দ্বিচারিতা । কংগ্রেস এই রকম দ্বিচারিতা করে না ।

আজ বুধবারের সাধারন ধর্মঘট যাতে সফল হয়, সেই কারনে মঙ্গলবার দুপুরে বাম কংগ্রেস যৌথ নেতৃত্ব ব্যারাকপুর শহরে বিশাল মিছিল করে ব্যারাকপুর প্রশাসনিক ভবন যাত্রা করে । এই মিছিলের নেতৃত্ব দেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র । মিছিলে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ তড়িৎ বরণ তোপদার, সিপিএম নেত্রী গার্গী চট্টোপাধ্যায়, উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কংগ্রেস সভাপতি তাপস মজুমদার সহ কয়েক হাজার বাম কংগ্রেস সমর্থক৷ মিছিল শেষে বাম কংগ্রেস শীর্ষ নেতারা ব্যারাকপুর প্রশাসনিক ভবনের সামনে একটি জনসভা করেন৷ বিজেপির একগুচ্ছ জন বিরোধী নীতিকে তুলে ধরে বাম কংগ্রেস নেতারা কেন্দ্রের সমালোচনায় মুখর হন ।