স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: স্বল্প সঞ্চয়ে সুদের হার জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ০.১ শতাংশ কমাল অর্থ মন্ত্রক। ১ জুলাই থেকে তা কার্যকর হবে। এই ঘোষণার পরই মোদী সরকারের তীব্র নিন্দা করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র৷ জেলায় জেলায় ডাকঘরগুলির সামনে দলের কর্মীদের আন্দোলনের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷

শনিবার প্রেস বিবৃতি দিয়ে প্রদেশ সভাপতি বলেন, একদিকে দেশের ৪০-৫০ জন বৃহৎ ব্যবসায়ীর ব্যাংক ঋণ রিস্ট্রাকচার করা হচ্ছে৷ ব্যাংকগুলিতে এন.পি.এ-র হার ক্রমশ বাড়ছে, মোদী সরকারের বন্ধুরা ব্যাংক লুঠ করে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছে৷অন্যদিকে, সাধারণ মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত মানুষের সারা জীবনের রোজগারের ব্যাংকে গচ্ছিত টাকার সুদ কমিয়ে তাঁদের জীবনযাত্রার উপর চরম আঘাত হানছে৷ পিপিএফ, এনএসসি এবং ডাকঘরে টাকা রাখেন অবসরপ্রাপ্ত চাকুরিজীবীরা, যাঁরা ব্যাংকের সুদের উপর নির্ভর করেন৷ তাদের পরিবারেই সবথেকে বেশি ধাক্কা লাগল৷

উল্লেখ্য, পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (পিপিএফ) এবং ৫ বছরের ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট (এনএসসি)-র এখন সুদের হার এখন ৮ শতাংশ। ১ জুলাই থেকে তা কমে দাঁড়াচ্ছে ৭.৯ শতাংশে। সেরকম ডাকঘরের ৫ বছরের মাসিক আয় প্রকল্পের সুদ ছিল ৭.৭ শতাংশ। তা হবে ৭.৬ শতাংশ। প্রবীণ নাগরিকদের পঞ্চবার্ষিকী সঞ্চয় প্রকল্পের সুদ ৮.৭ শতাংশ থেকে কমে ৮.৬ শতাংশ, সুকন্যা সমৃদ্ধি প্রকল্পের সুদ ৮.৫ শতাংশ থেকে কমে ৮.৪ শতাংশ এবং কিসান বিকাশ পত্রের সুদ ৭.৭ শতাংশ থেকে ৭.৬ শতাংশ (১১৩ মাসে মেয়াদপূর্তি) হবে।

একমাত্র অপরিবর্তিত থাকছে সেভিংসের ৪ শতাংশ সুদ। এ ছাড়া এক থেকে তিন বছরের মেয়াদি আমানতের সুদ ৭ শতাংশ থেকে কমে ৬.৯ শতাংশ হচ্ছে। পাঁচ বছরের মেয়াদি আমানতের সুদ ৭.৮ শতাংশ থেকে ৭.৭ শতাংশ এবং ৫ বছরের রেকারিং আমানতের সুদ ৭.৩ শতাংশ থেকে ৭.২ শতাংশ হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও