হাওড়া: সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে নিয়ে পথ হারানো মহিলাকে ঘরে ফিরিয়ে দিয়ে ত্রাতার ভূমিকা পালন করল পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে, হাওড়ার শিবপুর মন্দিরতলা এলাকায়। পুলিশের সাহায্যে নিজের স্ত্রীকে খুঁজে পেয়ে খুশি ওই মহিলার স্বামী এবং তাঁর পরিবারের সদস্যরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, হাওড়ার শিবপুর মন্দিরতলা এলাকায় বছর পঞ্চাশের ওই মহিলাকে রাস্তায় উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘুরতে দেখেন কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট। রাস্তার ধারে তাঁকে একা চুপচাপ বসে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় সেকেন্ড হুগলি ব্রিজ ট্রাফিক গার্ডের পুলিশ কর্মীদের।

তখন পুলিশ ওই মহিলাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। যদিও তিনি প্রথমে কিছু জানাতে চাননি। এমনকি বাড়ির ঠিকানাও বলতে পারছিলেন না। পুলিশের কাছে শুধু তাঁর নামটুকুই জানাতে পারেন তিনি। এবং বেশকিছুক্ষন পরে স্বামীর নামও জানান। কিন্তু কিছুতেই নিজের বাড়ির ঠিকানা বলতে পারছিলেন না তিনি।

পুলিশের সন্দেহ হয়, তিনি বাড়ির রাস্তা হারিয়েই এভাবে ঘোরাঘুরি করছিলেন। এরপর হাওড়া সিটি পুলিশের তরফ থেকে ওই মহিলার ছবি সহ তাঁর নাম দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হয়। আবেদন করা হয়, যদি কোনও সহৃদয় ব্যক্তি ওই মহিলাকে চেনেন তাহলে যেন পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এরপরেই মেলে সাফল্য। কিছুক্ষণ পর ওই মহিলার পরিচয় তার স্বামীর নাম এবং বাড়ির ঠিকানা জানতে পারে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার বাড়ি শিবপুরের অবিনাশ বন্দ্যোপাধ্যায় লেনে। ওই মহিলার নাম পুষ্পা জৈন। তাঁর স্বামীর নাম কমল কুমার জৈন। এরপর সোশ্যাল মিডিয়াতেই পুলিশ পুষ্পা জৈনের পরিবারের খোঁজ পায়৷ তাঁকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এই বিষয়ে হাওড়া সিটি পুলিশের সেকেন্ড হুগলি ব্রিজ ট্রাফিক গার্ডের আইসি অতনু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ”আমরা খবর পাই এক মহিলা মন্দিরতলা এলাকায় দীর্ঘক্ষণ রাস্তার ধারে একা বসে রয়েছেন। এরপর আমরা ওনাকে থানায় নিয়ে আসি। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে যাবতীয় পরিচয় জানার পর তাঁকে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।”