রিয়াধ: সারা বিশ্বে এমন বেশ কিছু এলাকা রয়েছে যেখানে জানুয়ারি মাসে মারাত্মক ঠাণ্ডা এবং তুষারপাত শুরু হয়। তবে আফ্রিকা ও মধ্য প্রাচ্যের মরুভূমিতে এমন ঘটনা খুবই কম ঘটে। তবে এ বছর আফ্রিকার সাহারায় ভারী তুষারপাত হয়েছে এবং সৌদি আরবে তাপমাত্রা নেমে গেছে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এই অঞ্চলের মরুভূমিতে হলুদ বালি সাদা বরফে ঢেকে গিয়েছে।

সাহারা মরুভূমির বালির ওপরে এই বরফের আস্তরণের কয়েকটি ছবিও সামনে এসেছে। জিও টিভির রিপোর্ট অনুযায়ী, সৌদি আরবের আসির অঞ্চলে প্রান্তরে এই বিরল তুষারপাত দেখতে স্থানীয় বাসিন্দা এবং বিদেশি পর্যটকরা আসছেন।

আরও পড়ুন – কৃষকদের ট্রাক্টর র‍্যালি: সিদ্ধান্ত দিল্লি পুলিশের উপর ছাড়ল সুপ্রিম কোর্ট

এর একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায়ও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। যেখানে স্পষ্ট ভাবে দেখা যাচ্ছে, তুষারপাত হচ্ছে। তবে শীত মৌসুমে সাধারণত এখানে তুষারপাত হয় না।

সাহারার আইন সেফরাকে মরুভূমির দ্বার বলা হয়। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১০০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত, এই এলাকা আটলাস পর্বত দ্বারা বেষ্টিত। সাহারা মরুভূমি উত্তর আফ্রিকার বেশিরভাগ অঞ্চলে ছড়িয়ে রয়েছে। গত হাজার হাজার বছর ধরে এখানে তাপমাত্রা এবং আর্দ্রতায় বড় পরিবর্তন হয়েছে।

আরও পড়ুন – হার্ট অ্যাটাকের জেরে যোগীরাজ্যে স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু, দাবি CMO-এর

তবে একদল বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন, এই মরুভূমি আবারও সবুজ হবে। কিন্তু বর্তমানে সৌদি আরবের মরুভূমিতে তুষারপাত হওয়ায় যারপরনাই আনন্দিত সেখানকার স্থানীয় লোকেরা। প্রচুর পর্যটকেরাও সেখানে আসছেন।

রিপোর্ট মোতাবেক, এলাকায় প্রায় ৫০ বছর পর তাপমাত্রা এত কমে গিয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে পারদ মাইনাস ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে গেছে। মরুভূমিতে বরফের মধ্যে উটে চড়ে অনেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি শেয়ার করছেন। উল্লেখ্য, মরুভূমিতে তুষারপাত খুব বিরল। তবে ঠাণ্ডা কিন্তু এখানেও অনেক পড়ে। রাতের বেলা তাপমাত্রা হঠাৎ নেমে আসে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।