বিজয়ওয়াড়া: অনেক কারণেই ম্যাচ বন্ধ রাখতে হয়৷ কিন্তু মরশুমের প্রথম রঞ্জি ম্যাচ কিছুক্ষণ বন্ধ থাকল এক অদ্ভূত কারণে৷ মন্দ আলো বা বৃষ্টির করাণে প্রায়শই খেলা বন্ধ থাকে। যা বাইশ গজে পরিচিত দৃশ্য৷ এছাড়াও কখনও মৌমাছির দাপটে এবং কখনও অতি-উৎসাহী সমর্থকের মাঠে ঢুকে পড়ার কারণে ম্যাচ বন্ধ রাখতে হয়৷ কিন্তু এবার একটু অন্য কারণে রঞ্জির প্রথম ম্যাচ বন্ধ থাকল কিছুক্ষণ৷

সোমবার রঞ্জি ট্রফির উদ্বোধনী ম্যাচে বিজয়ওয়াড়ার এসিএ ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ঢুকে পড়ে একটা সাপ। যার আতঙ্কে দু’দলের ক্রিকেটাররা কিছুটা হলেও ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েন। ফলে বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ রাখতে বাধ্য হন আম্পায়াররা৷ গ্রাউন্ড স্টাফরা সাপটিকে মাঠ থেকে বের করে দেওয়ার পরে ফের খেলা শুরু হয়৷ এই ভিডিও বিসিসিআই তার টুইটারে আপলোড করে৷

গতবারের চ্যাম্পিয়ন বিদর্ভ এবং অন্ধপ্রদেশ ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় এবারের রঞ্জি অভিযান৷ বিদর্ভ অধিনায়ক ফৈয়াজ ফয়জল টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। আর টিম ইন্ডিয়ার খেলোয়াড়া হনুমা বিহারীর নেতৃত্বে অন্ধ্রপ্রদেশ ব্যাট করতে নামার পরেই বিপত্তি দেখা যায়। ক্রিকেটাররা দেখেন মাঠের ভিতরে ঢুকে পড়েছে একটি সাপ। কিছুটা হলেও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ক্রিকেটাররা৷

সাপ-আতঙ্কে কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন আম্পায়াররা। ভিডিও-তে বিদর্ভের উইকেটকিপারকে মুখে হাত দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। তবে ততক্ষণে অবশ্য মাঠে ঢুকে পড়েছেন গ্রাউন্ড স্টাফরা৷ মাঠ থেকে সাপটিকে বের করার কাজ শুরু করে দেন৷

এর আগেও রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে মাঠে গাড়ি ঢুকে পড়ায় মাঝপথে খেলা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। দু’বছর আগে পালামের এয়ার ফোর্স গ্রাউন্ডে দিল্লি ও উত্তর প্রদেশ ম্যাচে হঠাৎ মাঠে ঢুকে পড়ে একটা গাড়ি। এর জন্য কিছুক্ষণের জন্য খেলা বন্ধ হয়েছিল৷ সেই ম্যাচ খেলছিলেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর এবং বতর্মান ভারতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঋষভ পন্থ৷

ম্যাচ শুরুতে অবশ্য দুই ওপেনার সিআর গনাশ্বর ও প্রশান্ত কুমারকে হারিয়ে ধাক্কা খায় অন্ধপ্রেদশ৷ যথাক্রমে ৮ ও ১০ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন দুই অন্ধপ্রদেশের ওপেনার৷ তারপর হাল ধরেন ক্যাপ্টেন বিহারী৷ ৮৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি৷ চা-বিরতি পর্যন্ত ৬ উইকেটে ১৬৩ রান তুলেছে অন্ধপ্রদেশ৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও