ঢাকা: চোরাকারবারিদের সঙ্গে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) রক্ষীদের সংঘর্ষের জেরে কয়েকজন জখম ও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনা মমনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলা সীমান্ত এলাকার।

এই এলাকাটি ভারতের অসম ও মেঘালয় সংলগ্ন। গুলিবিদ্ধ মৃত একজন ভারতীয়। সেও চোরাকারবারিদের দলে ছিল।

তবে তার পরিচয় এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। বিজিবি জানাচ্ছে এই খবর। বিজিবি ময়মনসিংহ সেক্টরের ৩৯ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তৌহিদ মাহমুদ জানান, সোমবার গভীর রাতে একদল চোরাকারবারিকে করা হয়।

সূর্যপূর বর্ডার পোস্টের কাছে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি চলে। এতে এক বিজিবি সদস্য জখম হয়েছেন। গুলি লেগে এক চোরাকারবারির মৃত্যু হয়েছে।

সম্প্রতি অসমের গুয়াহাটিতে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনির বৈঠক হয়। বিজিবি ও বিএসএফের এই যৌথ বৈঠকে স্থির হয়, সীমান্ত এলাকায় চোরাকারবার, অনুপ্রবেশ রুখতে দুই দেশের সীমাম্তরক্ষীরা যৌথ টহল দেবে।

এর পাশাপাশি সীমান্ত এলাকার সুবিধা নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের কিছু বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন শিবির চালাচ্ছে এমন তথ্যের আদান প্রদান করা হয়। বিজিবি ও বিএসএফ এই সব শিবির ধংসের জন্য ততপর হবে বলে জানায়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।