কেপ টাউন: বল বিকৃতির দায়ে আইসিসি এক ম্যাচ নির্বাসিত করেছে অজি দলনায়ক স্টিভ স্মিথকে৷ সঙ্গে ম্যাচ ফি-র একশো শতাংশ জরিমানাও হয়েছে তাঁর৷ তবে স্মিথের জন্য সম্ভবত আরও বড়সড় শাস্তি অপেক্ষা করে আছে৷ দেশের ভাবমূর্তী কলুষিত হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ও স্পোর্টস কমিশন এতটাই ক্ষুব্ধ স্মিথের উপরে, প্রয়োজনে তাঁকে আজীবন নির্বাসিতও করা হতে পারে৷

আরও পড়ুন: সরকারি চাপেই নেতৃত্ব ছাড়তে হয়েছে স্মিথকে

একা স্টিভ স্মিথ নন, ক্রিকেট থেকে অজীবন নির্বাসিত হতে পারেন সহঅধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারও৷ ঘরোয়া বোর্ড ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে৷ সাদারল্যান্ডদের একরোখা মনোভাব বদলে দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া দলের মেরুদন্ডটাই৷ কোচ লেম্যানও দাঁড়িয়ে রয়েছেন বারুদের স্তুপে৷

আরও পড়ুন: মর্কেলের ধাক্কায় ধরাশায়ী অস্ট্রেলিয়া

সাদারল্যান্ড আগের দিনই সমর্থকদের কাছে জাতীয় দলের হয়ে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন৷ তিনি জানিয়েছেন, তদন্তের পর এমন দূর্ভাগ্যজনক ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷ জাতীয় ক্রিকেট দলের ভাবমূর্তী পরিচ্ছন্ন করতে বোর্ডের আচরণবিধি অনুযায়ী স্মিথ-ওয়ার্নারদের নির্বাসিত করার পথেই হাঁটতে পারেন সাদারল্যান্ডরা৷

আরও পড়ুন: বল বিকৃতির দায়ে নির্বাসিত স্মিথ

আপাতত অস্ট্রেলিয়া বোর্ডের তরফে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে, চতুর্থ টেস্টের আগে কোনও অজি ক্রিকেটারই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে আসছেন না৷ আইসিসি ইতিমধ্যেই শেষ টেস্ট থেকে স্মিথকে নির্বাসিত করায় শোনা যাচ্ছিল তিনি কেপ টাউন থেকেই দেশে ফেরার বিমান ধরতে পারেন৷ তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত স্কোয়াডের কোনও ক্রিকেটারকেই দল ছাড়ার অনুমতি দিচ্ছে না ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷