জোহানেসবার্গ: ২০১৯ বিশ্বকাপ ও পরবর্তী সময়ে দেশের ক্রিকেটের ধারাবাহিক খারাপ ফর্ম অব্যাহত। হাল ফেরাতে উদ্যোগী দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড পূর্ণ সময়ের একজন ডিরেক্টরের খোঁজে। একটি গ্লোবাল ক্রিকেট ওয়েবসাইটের রিপোর্ট মোতাবেক গত সপ্তাহে এই পদের জন্য ইন্টারভিউ দিয়েছিলেন টেস্ট ক্রিকেটে দেশের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক গ্রেম স্মিথ। কিন্তু আচমকাই বোর্ডের নয়া ডিরেক্টর হওয়ার দৌড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন দেশের জার্সি গায়ে ১১৭টি টেস্ট, ১৯৭টি ওয়ান-ডে ও ৩৩টি টি-২০ খেলা প্রাক্তন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান।

ডিরেক্টর হিসেবে ভবিষ্যতে নিজের দায়িত্ব পালন নিয়ে বিশেষ আত্মবিশ্বাসী নন স্মিথ। সে কারণেই এই দৌড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন প্রাক্তন প্রোটিয়া অধিনায়ক। টুইটারে একটি বিবৃতি মারফৎ স্মিথ এদিন জানান, ‘সিএসএ’র ডিরেক্টর পদের জন্য আমার ইন্টারভিউ দেওয়ার খবর চলতি সপ্তাহে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত এই পদের দৌড় থেকে আমি নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছি।’

আরও পড়ুন: প্রথম টি-টোয়েন্টিতে সহজ জয় ক্যারিবিয়ানদের

‘ডিরেক্টর পদে ভূমিকা গ্রহণ করতে পারলে ভালোই লাগত। কিন্তু ডিরেক্টর হিসেবে দেশে ক্রিকেটে বদল আনার ইচ্ছে থাকলেও প্রয়োজনীয় আত্মবিশ্বাস অর্জনে ব্যর্থ আমি। আমার মনে হয় দেশের ক্রিকেটের হাল ফেরানোর জন্য প্রয়োজনীয় স্বাধীনতা ও সমর্থন আমি দেশের ক্রিকেট বোর্ডকে জোগাতে পারতাম না।’ বিবৃতিতে আরও জানিয়েছেন বছর আটত্রিশের স্মিথ।

আরও পড়ুন: দশ বছর পর পাক ভূখন্ডে টেস্ট ক্রিকেটের আসর

উল্লেখ্য, অক্টোবরে শেষ হওয়া ভারত সফরে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের ডিরেক্টরের দায়িত্ব ছিল অনভিজ্ঞ ইনোচ এনকোবির উপর। কিন্তু ভারতের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রত্যেকটিতে বড় ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হতে হয় ডু’প্লেসি নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে। উল্লেখ্য, সুপার লিগ টি-২০ টুর্নামেন্টে ক্রিকেটারদের সঙ্গে অর্থ সংক্রান্ত ঝামেলার কারণে আগেই নির্বাসিত করা হয়েছিল অন্তর্বর্তীকালীন ডিরেক্টর প্রাক্তন ক্রিকেটার কোরি ভ্যান জিল ও আরও দু’জন বোর্ড অফিসিয়ালকে।

তবে সূত্রের খবর, পুনরায় পূর্ণসময়ের জন্য বোর্ডের ডিরেক্টর হওয়ার দৌড়ে রয়েছেন ভ্যান জিল। তবে ডিরেক্টর হওয়ার দৌড় থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেও জাতীয় দলের পাশে সবসময় থাকবেন বলে জানিয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে ৯,২৬৫ রানের মালিক। বিবৃতির শেষে প্রাক্তন প্রোটিয়া অধিনায়ক গ্রেম স্মিথ জানিয়েছেন, ‘জাতীয় দলকে আমি আগামীতে ক্রমাগত সমর্থন জুগিয়ে যাব এবং যখনই সুযোগ পাব আমার মূল্যবান পরামর্শ প্রদান করব।’