বার্মিংহ্যাম: বহু প্রতীক্ষিত অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে শুরু হয়ে গেল আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। এজবাস্টনে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনেই ব্যাট-বলের উত্তেজক লড়াই দেখল ক্রিকেট-বিশ্ব। টেল-এন্ডারদের সঙ্গে নিয়ে স্টিভ স্মিথের কামব্যাক সেঞ্চুরি যদি হয় অ্যাশেজে ব্যাটিং উৎকর্ষতার চূড়ান্ত নিদর্শন, তবে স্টুয়ার্ট ব্রডের পাঁচ উইকেট প্রমাণ দিল বোলারদের দাপটের। তথ্য ও পরিসংখ্যানে এক ঝলক ফিরে দেখা যাক অ্যাশেজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের লড়াই।

নির্বাসন কাটিয়ে ক্রিকেটে ফেরার পর এটি ছিল স্টিভ স্মিথের প্রথম টেস্ট ম্যাচ। প্রথম ইনিংসেই ব্যাট হাতে ঝকঝকে ১৪৪ রান উপহার দেন স্মিথ। টেস্ট কেরিয়ারে এটি স্মিথের ২৪ নম্বর সেঞ্চুরি। অ্যাশেজে এটি তাঁর নবম শতরান।

 ১১৮ টি টেস্ট ইনিংসে স্মিথ ২৪ নম্বর শতরান করলেন। তাঁর থেকে কম ইনিংসে ২৪টি টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন কেবল স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। তিনি ২৪টি সেঞ্চুরিতে পৌঁছতে খরচ করেছিলেন ৬৬টি ইনিংস। বিরাট কোহলি ও সচিন তেন্ডুলকর ২৪টি টেস্ট সেঞ্চুরি করেছিলেন যথাক্রমে ১২৩ ও ১২৫টি ইনিংসে। এই নিরিখে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে টপকে গেলেন স্মিথ।

 টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৪টি সেঞ্চুরি করে স্টিভ স্মিথ ছুঁয়ে ফেললেন গ্রেগ চ্যাপেল, ভিভ রিচার্ডস ও মহম্মদ ইউসুফকে। একযোগে টপকে গেলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ, কেভিন পিটারসেন, জাস্টিন ল্যাঙ্গার ও জাভেদ মিয়াঁদাদকে। এই মুহূর্তে বিরাট কোহলি ও ইনজামাম-উল-হকের ২৫টি টেস্ট সেঞ্চুরির ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছেন স্মিথ।

অ্যাশেজের ইতিহাসে ৯টি সেঞ্চুরি করে স্মিথ বসে পড়লেন ওয়ালি হ্যামন্ড ও ডেভিড গাওয়ারদের সঙ্গে একাসনে। হ্যামন্ড ও গাওয়ারও অ্যাশেজে ৯টি করে সেঞ্চুরি করেছেন। অ্যাশেজে স্মিথের থেকে বেশি সেঞ্চুরি রয়েছে মাত্র ৩ জন ক্রিকেটারের। স্যার ডন ব্র্যাডম্যান অ্যাশেজে ১৯টি সেঞ্চুরি করেছেন। জ্যাক হবসের রয়েছে ১২টি অ্যাশেজ সেঞ্চুরি। স্টিভ ওয়াহর ঝুলিতে রয়েছে ১০টি অ্যাসেজ শতরান। মোট ৪২টি ইনিংসে স্মিথ অ্যাশেজে ৯টি সেঞ্চুরি করেন। ন’টির মধ্যে পাঁচটি শতরান এসেছে শেষ সাতটি অ্যাশেজ টেস্টে।

 ১২২ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর অস্ট্রেলিয়া তাদের প্রথম ইনিংস শেষ করে ২৮৪ রানে। অর্থাৎ নবম ও দশম উইকেটের জুটিতে সম্মিলিতভাবে ১৬২ রান যোগ করে অস্ট্রেলিয়া। যার মধ্যে স্টিভ স্মিথের একার অবদান ছিল ১০২ রান। যা তিনি ১০৯ বলে সংগ্রহ করেন। তার আগের ৪২ রান করতে তিনি খরচ করেন ১১৯ বল। পিটার সিডলের সঙ্গে নবম উইকেটের জুটিতে ৮৮ রান যোগ করেন স্মিথ। যার মধ্যে তাঁর নিজের অবদান ছিল ৫৫ বলে ৪৩ রান। নাথন লায়নকে সঙ্গে নিয়ে শেষ উইকেটের জুটিতে ৭৪ রান যোগ করেন স্টিভ। যার মধ্যে তাঁর ব্যক্তিগত সংগ্রহ ৫৪ বলে ৫৯।

প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে স্টুয়ার্ট ব্রড অ্যাশেজে ১০০ উইকেট দখল করার কৃতিত্ব অর্জন করেন। স্মিথ হলেন অ্যাশেজে তাঁর শততম শিকার। এই নিয়ে টেস্টে মোট ৭ বার স্মিথকে আউট করেন ব্রড। টেস্টে কোনও একজন বোলারের বলে এতবার আউট হননি স্মিথ। ২০১৫ সালের পর ঘরের মাঠে টেস্টে আবার এক ইনিংসে ৫ উইকেট নিলেন ব্রড।