মেলবোর্ন: নিশ্চিত শতরান হাতছাড়া করলেন স্টিভ স্মিথ। তবে তিন অঙ্কে পৌঁছনোর আগে হাল ছাড়লেন না ট্রেভিস হেড। ক্যাপ্টেন টিম পেইন অর্ধশতরানের কার্যকরী যোগদান রাখেন। সব মিলিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম ইনিংসে বড় রানের লক্ষ্যে পৌঁছে গেল অস্ট্রেলিয়া।

এমসিজিতে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়া প্রথম দিনের শেষে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ২৫৭ রান তুলেছিল। স্টিভ স্মিথ ৭৭ ও হেড ব্যক্তিগত ২৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার পর থেকে খেলা শুরু করে অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই স্মিথের উইকেট হারিয়ে বসে। ব্যক্তিগত ৮৫ রানের মাথায় ওয়াগনারের বলে হেনরি নিকোলসের হাতে ধরা পড়েন স্মিথ। ২৪২ বলে সতর্ক ইনিংসে ৮টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি।

হেড অবশ্য হাল ছাড়েননি। ক্যাপ্টেন পেইনকে সঙ্গে নিয়ে দলের ইনিংসকে টেনে নিয়ে যান তিনি। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ১৫০ রান যোগ করেন দু’জনে। ব্যক্তিগত ১১৪ রানের মাথায় ওয়াগনারের বলেই স্যান্টনারের হাতে ক্যাচ দিয়ে বসেন হেড। ২৩৪ বলের ইনিংসে তিনি ১২টি চার মেরেছেন।

৯টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১৩৮ বলে ৭৯ রান করে ওয়াগনারের বলে এলবিডব্লিউ হন অধিনায়ক পেইন। মিচেল স্টার্ক ১, প্যাট কামিন্স ০ ও নাথান লায়ন ১ রান করে আউট হন। ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন জেমস প্যাটিনসন। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ৪৬৭ রান তুলে অল-আউট হয়ে যায়।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ওয়াগনার ৮৩ রানের বিনিময়ে সর্বাধিক ৪টি উইকেট দখল করেন। ১০৩ রান খরচ করে ৩টি উইকেট নিয়েছেন টিম সাউদি। ৬৮ রানে ২টি উইকেট কলিন ডি’গ্র্যান্ডহোমের। ৯১ রানে ১টি উইকেট ট্রেন্ট বোল্টের। স্যান্টনার ও ব্লান্ডেল সাকুল্যে ২৩ ওভার বল করেও কোনও উইকেট পাননি।

অস্ট্রেলিয়ার ৪৬৭ রানের জবাবে দ্বিতীয়দিনের শেষে ২ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে নিউজিল্যান্ড। ওপেনার টম ব্লান্ডেল ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৪৪ রান তুলেছে কিউয়িরা। ৯ রানে অপরাজিত থেকে তৃতীয়দিন ব্যাট হাতে নামবেন আরেক ওপেনার টম ল্যাথাম, সঙ্গী রস টেলর অপরাজিত ২ রানে। ব্যক্তিগত ১৫ রানে এদিন কামিন্সের শিকার হন ব্লান্ডেল। ৯ রানে প্যাটিনসনের ডেলিভারিতে পেইনের হাতে তালুবন্দি হন উইলিয়ামসন।