জয়পুর: নির্বাসন কাটিয়ে দল ফিরলেও নেতৃত্ব পাননি৷ কিন্তু শনিবার গোলাপি জার্সিতে দেখা গেল নেতা স্টিভ স্মিথকে৷ সোয়াই মানসিং স্টেডিয়ামে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে টস করেন স্মিথ৷ শুধু মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধেই নয়, আইপিএলে বাকি ম্যাচ গুলিতে অজিঙ্ক রাহানের পরিবর্তে রয়্যালসকে নেতৃত্ব দেবেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক৷

জোস বাটলারের পরিবর্তে দলে ঢুকে রয়্যালসের নেতৃত্ব দেন স্মিথ৷ টস জিতে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রয়্যালস অধিনায়ক৷ এদিন দলে তিনটি পরিবর্তন করেছে রয়্যালস থিঙ্কট্যাঙ্ক৷ স্মিথ ছাড়াও দলে এসেছেন বেন স্টোকস ও রিয়ান প্ররাগ৷ সন্তানের জন্মের সময় স্ত্রীর পাশে থাকতে দেশে ফিরে গিয়েছেন বাটলার৷ মুম্বই দলে এদিন একটি পরিবর্তন হয়৷ জয়ন্ত যাদবের জায়গায় দলে এসেছেন ময়াঙ্ক মারকাণ্ডে৷ গত ম্যাচ জিতে দিল্লি ক্যাপিটালসকে হারিয়ে লিগ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স৷

রাহানের নেতৃত্বে দ্বাদশ আইপিএলে মোটেই ভালো জায়গায় নেই রয়্যালসবাহিনী৷ তাই টুর্নামেন্টের মাঝপথেই নেতা বদল রাজস্থানের৷ মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই ‘ফ্রেস অ্যাপ্রোচ’ বলে জানায় রয়্যালস থিঙ্কট্যাঙ্ক৷ রাজস্থান রয়্যালসের হেড অফ ক্রিকেট জুবিন বারুচা জানান, ‘অজিঙ্কা একজন ট্রু রয়্যাল৷ গত আইপিএলে রাজস্থানকে প্লে-অফে তুলেছিল ও৷ এটা ছিল আমাদের কাছে চ্যালেঞ্জিং৷ কারণ দু’ বছরের নির্বাসন কাটিয়ে কামব্যাক করাটা সহজ ছিল না৷ এবারও অজিঙ্কা আমাদের প্রধান প্লেয়ার৷ তবে নেতৃত্বের জন্য স্টিভের অভিজ্ঞতা আমাদের প্রয়োজন৷ স্টিভ ইনোভেটিভ এবং অত্যন্ত সফল অধিনায়ক৷ সব ধরনের ফর্ম্যাটেই৷ আশা করব স্মিভের নেতৃত্বে রয়্যালস সফল হবে৷’

গত বছর রাহানের নেতৃত্বে রাজস্থান প্লে-অফ খেললেও এবার আট ম্যাচে ছ’টিতে হেরেছে৷ গত বছরও স্মিভই ছিলেন রয়্যালস অধিনায়ক৷ কিন্তু টুর্নামেন্টের ঠিক আগে দেশের জার্সিতে বল-বিকৃতি ঘটনায় এক বছরের জন্য নির্বাসিত হন স্মিথ৷ চলতি মার্চেই নির্বাসন উঠে গেলেও দেশের নেতৃত্ব ফিরে পাননি স্মিথ৷ বিশ্বকাপের দলে থাকলেও তাঁর পরিবর্তে অ্যারন ফিঞ্চকে নেতা বেছে নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া৷

রাজস্থান রয়্যালস: অজিঙ্কা রাহানে, সঞ্জু স্যামসন, স্টিভ স্মিথ (ক্যাপ্টেন), অ্যাশটন টার্নার, বেন স্টোকস, রিয়ান প্ররাগ, জোফরা আর্চার, স্টুয়ার্ট বিনি, শ্রেয়স গোপাল, জয়দেব উনাদকট ও ধবল কুলকার্নী৷

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: রোহিত শর্মা (ক্যাপ্টেন), কুইন্টন ডি’কক, বেন কাটিং, সূর্যকুমার যাদব, ক্রুনার পান্ডিয়া, হার্দিক পান্ডিয়া, কাইরন পোলার্ড, রাহুল চাহার, ময়াঙ্ক মাককাণ্ডে, জসপ্রীত বুমরাহ ও লসিথ মালিঙ্গা৷