নয়াদিল্লি:দেশের বেহাল অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে শনিবার দুপুরে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করলেন৷ এদিন ন্যাশনাল মিডিয়া সেন্টারে তিনি সাংবাদিক বৈঠক৷ তিনি এদিন রফতানিতে উৎসাহ দিতে ব্যবস্থা নিচ্ছেন বলেন জানান৷ পাশাপাশি জানিয়েছেন, ছোট খাটো কর ফাঁকির জন্য কোনও রকম কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে না বলে অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন৷

এদিন মন্ত্রী দাবি করেন,অর্থনীতি চাঙ্গা হওয়ার লক্ষণ দেখা গিয়েছে ৷ অন্যদিকে মুদ্রাস্ফীতি ৪ শতাংশের তলায় এসেছে৷ তিনি এদিন জানান, ব্যাংকের পর এবার কর ব্যবস্থার সংস্কার করাই লক্ষ্য এই সরকারের৷ এদিকে ১৯ সেপ্টেম্বর তিনি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যংকের প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ঋণের সরবরাহের বিষয়ে৷ সেপ্টেম্বরের শেষাশেষি পুরোপুরি স্বয়ংক্রিয় জিএসটি রিফান্ড ব্যবস্থা চালু হবে৷

গত কয়েকদিনে এই নিয়ে এটি হচ্ছে নির্মলার তৃতীয় সাংবাদিক সম্মেলন৷ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সংযুক্তিকরণ এবং একগুচ্ছ ফরেন পোর্টফলিও ইনভেস্টমেন্ট (এফপিআই) সংক্রান্ত পদক্ষেপ করার পর আশা করা হচ্ছিল এবার এই সরকার কিছু সিদ্ধান্ত নেবে রিয়েল এস্টেট এবং রফতানি ক্ষেত্রকে চাঙ্গা করার৷

মোদী সরকার আপাতত লড়ছে অর্থনৈতিক মন্দার বিরুদ্ধে যাতে অটো রিয়েল এস্টেট এফএমসিজি, উৎপাদন সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাব পড়েছে ৷ ২৩ অগস্ট সীতারমন প্রথম ফরেন পোর্টফলিও ইনভেস্টমেন্ট (এফপিআই) সারসার্চ তুলে দেওয়ার কথা এবং রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের জন্য ৭০,০০০কোটি টাকা ছাড়া যাতে তা দিয়ে অটো সেক্টরের মতো অন্যান্য ক্ষেত্র চাঙ্গা করা যায়৷

এরপরে ৩০ অগস্ট অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেন ১০টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে সংযুক্তিকরণের মাধ্যমে চারটি আর্থিকভাবে শক্তিশালী বড় ব্যাংকে পরিণত করার৷ এদিক বর্তমানে ভারতের বৃদ্ধির হার এপ্রিল থেকে জুনে ৫শতাংশে পৌঁছেছে যা গত ছয় বছরে সর্বনিম্ন৷ তাছাড়া উৎপাদন মন্দা এবং চাহিদা ও লগ্নি নিম্নমুখি ৷ এই পরিস্থিতির জন্য জন্য ২০২৪ সালে ৫ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতি গড়ার আশা ভঙ্গ হচ্ছে ৷