পারথ: কিপিংয়ের সময় সর্বদাই মুখ চলেছে তাঁর৷ বিপক্ষ ব্যাটসম্যানের মনসংযোগ নষ্ট করতে চলছে কড়া স্লেজিং৷ অ্যাডিলেডের পর পারথেও উইকেটের পিছনে পন্তের স্লেজিং স্টাম্প মাইকে ধরা পড়েছে৷ অন্যের মনসংযোগ ভাঙতে গিয়ে নিজে ফোকাস থেকে সরে যাচ্ছে তরুণ উইকেটকিপার৷

পারথে প্রথম দিনের শেষ সেশনে দস্তানা হাতে যেমন শন মার্সের সহজতম ক্যাচ ফেললেন৷ হনুমার বল মার্সের ব্যাটের কানায় লেগে সোজা পন্তের হাতে এসে জমা পড়লেও, ক্যাচটি মিস করেন ঋষভ৷ অজিদের স্কোরবার্ডে রান তখন ১৮৮/৪৷ মার্সের ঝুলিতে ২৪ রান৷ মোক্ষম সময়ে মার্সকে প্যাভিলিয়নে ফেরাতে পারলে অজিদের চাপে ফেলা যেত৷ সহজ ক্যাচ হাতছাড়ায় পর শেষ পর্যন্ত অর্ধশতরান থেকে পাঁচ রানে আগে থেমে যায় মার্সের ইনিংস৷ ভারতের পার্ট-টাইম স্পিনার হনুমা বিহারীর শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অজি বাঁ-হাতি৷

আরও পড়ুন- HIV পজিটিভ হয়েও অলিম্পিকে সোনা জয়ের রহস্য ফাঁস করলেন কিংবদন্তি ডাইভার

বিরাট যেখানে ম্যাচের প্রথম দিন শূন্যে ঝাঁপিয়ে দুরন্ত ক্যাচে হ্যান্ডসকম্বকে ফেরালেন, সেখানেই স্লেজিং করতে গিয়ে মনসংযোগ খুইয়ে উইকেটের পিছনে সহজ ক্যাচ ফেললেন পন্ত৷ দেখার অযোগ্য এমন কিপিং নিয়ে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা ঝড় উঠছে৷ রোষের মুখে ক্রিকেট ভক্তদের প্রশ্ন, ‘স্লেজিং না কিপিং, কোনটা পছন্দ পন্তের’৷

একই দিনে ভারতীয় ফিল্ডিংয়ের দু’রকম চিত্র৷ দুরন্ত ক্যাচ কোহলির৷ উপরে- সহজতম ক্যাচ ফেললেন পন্ত

অ্যাডিলেড টেস্টে পন্তের ক্যাচ ফেলার নমুনা

আরও পড়ুন- ভারতের ৪৩ বছরের স্বপ্নভঙ্গ অব্যাহত

এর আগে অ্যাডিলেডেও ক্যাচ ফেলেছেন ঋষভ৷ সেবার অবশ্য দুই ইনিংস মিলিয়ে ১১ ক্যাচ নিয়ে এবি ডি’ভিলিয়ার্সের বিশ্বরেকর্ড স্পর্শ করায় ভুলভ্রান্তি সাফল্যের আলোয় ঢাকা পড়ে গিয়েছিল৷ অজিভূমিতে এভাবে ম্যাচের পর ম্যাচ ক্যাচ ফেললে তার বড় মূল্য চোকাতে হতে পারে সেটা ভালই জানেন তরুন কিপার৷ স্লেজিং ছেড়ে এবার তাই ঋষভের ফোকাস থাকুক কিপিংয়ে৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প