কলকাতা: সামনেই নতুন বছর। আর বছর ঘুরলেই বেতন বাড়ছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের। ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ মোতাবেক বেতন বাড়বে কর্মীদের। কিন্তু অবসরপ্রাপ্ত রাজ্য সরকারি কর্মীদের পেনশন নিয়ে কিছু ধোঁয়াশা তৈরি হয়। আর সেই সমস্যা কাটাতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার। পেনশন সংক্রান্ত যে কোনও অসঙ্গতি কাটাতে সম্প্রতি এই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে।

ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাস থেকে কার্যকর করা হচ্ছে বলে ধরে নেওয়া হয়েছে। ওই সময়ের পর অবসর নেওয়া সরকারি কর্মীদের পেনশন নতুন করে নির্ধারণ করা হবে। কিন্তু সমস্যা তৈরি হয় ২০১৬ সালের আগে অবসর নেওয়া কিছু রাজ্য সরকারি কর্মীদের পেনশন নিয়ে। বিশেষ করে কিছু পদের ক্ষেত্রে সরকারি কর্মী ও আধিকারিক, যাঁরা ২০১৬ সালের জানুয়ারির আগে অবসর নিয়েছেন, তাঁদের সঙ্গে ওই সময়ের পর অবসর নেওয়া কর্মীদের মূল পেনশনের ক্ষেত্রে বৈষম্য তৈরি হয়েছিল। কিন্তু সেই বৈষম্য কাটাতে উদ্যোগী মমতা সরকার। ইতিমধ্যে অর্থ দপ্তরের নির্দেশিকায় সেই বৈষম্য দূর করার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

অর্থ দফতর এই সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে যে, ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসের পর অবসর নেওয়া কর্মীদের নতুন করে পেনশন কম্যুটেশন বা বিক্রির ব্যাপারে বিভ্রান্তি কাটাতে একেবারে নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ওই সময়ের পর অবসর নেওয়া কর্মীরা তাঁদের যে নতুন পেনশন নির্ধারিত হবে, তার বর্ধিত অংশের ৪০ শতাংশ বিক্রি করতে পারবেন। আগামী বছরের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে নতুন করে পেনশন কম্যুটেশনের জন্য আবেদন করা যাবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছর পুজোর আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য সরকারি কর্মীদের খুশির খবর শোনান। ষষ্ঠ বেতন কমিশন সুপারিশ অনুযায়ী বেতন বৃদ্ধির কথা জানান। সেই মতো ১ লা জানুয়ারি থেকেই এক ধাক্কায় অনেকটাই বাড়ছে বেতন। জানুয়ারি থেকেই বর্ধিত বেতন পাবেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা মতো রাজ্যের প্রায় লক্ষাধিক সরকারি কর্মী উপকৃত হবেন। কিন্তু অবসরপ্রাপ্ত রাজ্য সরকারি কর্মীদের কিছু বিষয় নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল। যদিও অর্থদফতর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সেই ধোঁয়াশা কাটিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।