নয়াদিল্লিঃ  হোটেলে জোর করে নাচ করানোর চেষ্টা। হোটেল মালিকের কু-প্রস্তাব। কোনও কিছুতেই রাজি না হওয়াতে দুই মহিলাকে আটকে রাখা হল দুবাইয়ের এক হোটেলে। শেষমেশ বুদ্ধির জোরে কোনও রকমে রক্ষা। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ। ধৃত দুই অভিযুক্তের নাম সুখদেব সিং এবং জোসানপ্রীত সিং। যদিও ঘটনার পরেই পলাতক মূল অভিযুক্ত। মূল অভিযুক্ত সলমন খানের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখছে ভারতীয় হাইকমিশনও।

জানা গিয়েছে, ওই দুই মহিলাকে টুরিস্ট ভিসায় দুবাই পাঠানো হয়। গত ৭ জুন অভিযুক্ত ওই তিনজন তাঁদের দুবাই পাঠায়। এরপরের দিন অর্থাৎ ৮ জুন দুপুরে যে হোটেলে ওই দুই মহিলা ছিলেন সেখানে তাঁদের নাচতে বলেন। সংশ্লিষ্ট ওই হোটেলের মালিক তাঁদেরকে জোর করে নাচানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে রাজি হননি ওই দুই মহিলা। এরপর তাঁদের কুপ্রস্তাবও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু তাতেও রাজি না হওয়াতে জোর করে মহিলাদের হোটেলের একটি ঘরে বন্ধ করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কেড়ে নেওয়া হয় তাঁদের পাসপোর্ট। কিন্তু বুদ্ধির জোরে শেষমেশ রক্ষা পান তাঁরা।

জানা যায় কোনও রকমে তাঁদের মধ্যে একজন ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসে। আর নিজের স্বামীকে ভয়েস মেসেজ পাঠিয়ে পুরো ঘটনাটি জানান। মেসেজ কার্যত আঁতকে ওঠেন ওই মহিলার স্বামী। কি করবেন তা বুঝতে পারেন না সহজে। এরপর পুরো ঘটনাটি স্থানীয় পুলিশকে জানান ওই মহিলার স্বামী। এরপরেই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। দুবাই পুলিশের একটি দল ওই হোটেলের হানা দেয়। আর সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় মহিলাদের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ওই দুই মহিলার পাসপোর্ট ইতিমধ্যে ফিরিয়ে দেওয় হয়েছে। ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করা হলেও মূলত অভিযুক্ত পলাতক। তাঁর খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।