ফাইনালি ইটস হ্যাপিনিং৷মাদাম তুসোতে আসতে চলেছে তারও মোমের মূর্তি৷ যদি সে তার রাজের সঙ্গে থাকবেন কিনা তা এখনও স্থির হয়নি৷ রাজের সিমরান অর্থাৎ কাজলের মোমের মূর্তি এবার স্থান পেতে চলেছে মাদাম তুসো মিউজিয়ামে৷ সম্প্রতি লন্ডনের মাদাম তুসো থেকে একটি দল কাজলের মেজারমেন্ট নিয়ে যায়৷ খুব শিগগিরি তৈরি হবে তার মূর্তিটি৷ এবং তার সঙ্গে দীর্ঘক্ষন আলোচনাও করেন তারা৷

একটি সাক্ষাৎকারে কাজল জানান, “এই বিষয়টি নিয়ে এখনও আমি আশ্চর্য এবং অভিভূত৷ চার ঘন্টা ধরে আমার মেজারমেন্ট এবং আমার সম্বন্ধে বিস্তারিত নিল৷” শোনা যাচ্ছে, মূর্তিটি উন্মোচন করবেন তা স্বামী অজয় দেবগন এবং তার ছেলে মেয়েরা৷ ২০১৮তেই উন্মোচন হবে সেই মূর্তি৷ গোটা বিষয় নিয়ে অত্যন্ত উচ্ছসিত এই বলিডিভা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I