শিলিগুড়ি: বেড়াতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মৃত্যু বাঙালি পর্যটকের। সিকিমের খাদে পড়ল বাঙালি পর্যটকদের গাড়ি। খাদে গাড়ি উল্টে চালক ও এক পর্যটকের মৃত্য়ু হয়েছে। দুর্ঘটনায় আহত আরও ৮ পর্যটক সিকিমের রংলি হাসপাতালে ভরতি। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজেন রঅবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, সিকিমে বেড়াতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়া পর্যটকদের সকলেই কলকাতার মানিকতলা এলাকার বাসিন্দা। ৫ মার্চ পর্যটকদের ওই দলটি সিকিম বেড়াতে যায়। জুলুক থেকে পেলিং ফেরার পথে খাদে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন পর্যটকদের গাড়ির চালক। রাস্তার পাশের গভীর খাদে উল্টে পড়ে যায় গাড়িটি। দুর্ঘটনার জেরে গাড়ির চালক-সহ এক পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। দুর্ঘটনায় আরও ৮ বাঙালি পর্যটক আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের চোট গুরুতর বলে জানা গিয়েছে। সিকিমের রংলি হাসপাতালে তাঁদের চিকিৎসা চলছে।

মঙ্গলবার গাড়িতে করে সিকিমের জুলুক থেকে পেলিং যাচ্ছিল বাঙালি পর্যটকের ওই দলটি। রংপোর লিংটামে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায় পর্যটকদের গাড়িটি। নীচে পড়ে দুমড়ে-মুচড়ে যায় গাড়িটি। ঘটনাস্থলেই গাড়ির চালক-সহ দুজনের মৃত্যু হয়। আহতদের উদ্ধারে এগিয়ে আসেন স্থানীয়রাই। প্রত্যেককে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। পর্যটকদের ওই দলটিতে একটি শিশুও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

এদিকে, সিকিমে বেড়াতে গিয়ে স্বজনদের দুর্ঘটনার কবলে পড়ার খবর পৌঁছেছে মানিকতলায়। দুর্ঘটনায় দুই পর্যটকের মৃত্যুরও খবর পৌঁছেছে বাড়িতে। শোকের ছায়া গোটা এলাকায়। দুর্ঘটনায় আহতদের শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে ঘোরতর উদ্বেগে রয়েছে পরিবার। সুস্থ হয়ে তাঁদের বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় আত্মীয় ও প্রতিবেশীরা। এব্যাপারে সরকারিস্তরে উদ্যোগ নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা।