স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া : শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছাড়ার পর থেকে তার অনুগামী হিসাবে বেশ কয়েকজনকে চিহ্নিত করে দল। একের পর এক একাধিক অভিযোগ তুলে পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছে। বেশকিছুদিন ধরে হলদিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান শ্যামল আদককে নিয়ে নানা জল্পনা তৈরি হয়। এবার সেই জল্পনার অবসান ঘটতে চলেছে বলে মনে করে হচ্ছে। সূত্রের খবর সুধাংশু মন্ডল সম্ভাব্য চেয়ারম্যান হতে চলেছে।

অন্যদিকে শীঘ্রই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন শিশির অধিকারী। একের পর এক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর থেকে শিশির অধিকারীর রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ঘিরে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। অনেকেই বলছেন ছেলে শুভেন্দুর হাত ধরে সম্ভবত বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন শিশির অধিকারী। এই পরিস্থিতিতে আজ বৃহস্পতিবার মুখ খুলেছেন শিশিরবাবু।

স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, সব রাস্তাই খোলা রয়েছে। তবে যে সিদ্ধান্তই নিন না কেন তা দলনেত্রীকে জানিয়েই নেবেন বলে দাবি করেছেন কাঁথির সাংসদ৷ আর তা এহেন মন্তব্যের পরেই শিশির বিজেপি যোগ নিয়ে আরও জল্পনা তীব্র হয়েছ।

যদিও বিজেপি-তে যোগদানের বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু না বললেও শিশির বলেন, ‘আমি তো চিৎপুরের যাত্রাপার্টি নই যে বায়না করলেই সেখানে চলে যাব৷ আমার চিন্তাধারার সঙ্গে মিলতে হবে৷ তবে নিজের লোকেদের সঙ্গে কথা বলেই যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেব৷’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।