কলকাতা: ফের নারদ-কাণ্ডে তলব করা হল পহিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। এছাড়া প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কেও তলব করা হয়েছে। সঙ্গে ম্যাথু স্যামুয়েলকে ও ডাকা হচ্ছে। তিনজনকেই আগামী বুধবার নিজাম প্যালেসে শুভেন্দু-শোভনকে তলব করেছে সিবিআই।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরে নারদকাণ্ডে অভিযুক্তদের কন্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহের কাজ চলছে নিজাম প্যালেসে। মূলত কন্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহের জন্যই শোভন-শুভেন্দুকে তলব বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগেও প্রাক্তন দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় ও পরিবহণমন্ত্রীকে তলব করা হয়েছিল। কিন্তু হাজিরা দেননি বিজেপি নেতা শোভন ও মন্ত্রী শুভেন্দু।

সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, শুভেন্দু-শোভন-ম্যাথুকে একসঙ্গে বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করা হতে পারে। নারদকাণ্ডে ১৩ অভিযুক্তের মধ্যে তৃণমূলের সুলতান আহমেদের মৃত্যু হয়েছে। বাকি ১২ অভিযুক্তের মধ্যে ৫ জনের কন্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহ করা বাকি রয়েছে বলে খবর।

কিছুদিন আগেই নারদ-কাণ্ডে ১০ জনকে তলব করে সিবিআই। তালিকায় ছিলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, কাকলি ঘোষ দস্তিদার সহ আরও অনেকে। ছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ও। প্রয়োজনে ম্যাথু স্যামুয়লের মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হবে বলে তখনও শোনা গিয়েছিল। তবে এই তালিকায় উল্লেখযোগ্যভাবে নাম ছিল না বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের। সেই নিয়ে জল্পনা দানা বাঁধছে। গোটা স্টিং অপারেশনে মোট ৬৫ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলেও জানিয়েছেন নারদা নিউজের এমডি ম্যাথু স্যামুয়েল।

এর আগে সিবিআইয়ের নোটিশ পেয়েই নিজাম প্যালেসে হাজির হয়েছিলেন তৎকালীন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। সেদিন নির্ধারিত সময়ের আগেই তিনি নিজাম প্যালেসে হাজির হন। দশজন দেহ রক্ষীকে সঙ্গে নিয়ে সিবিআই দফতরে ঢোকেন তৎকালীন মেয়র। তখন তার জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা ছিল।

সেদিন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকে জানতে চেয়েছিল নারদকর্তার কাছ থেকে তিনি টাকা নিয়েছিলেন কিনা? টাকা নিয়ে থাকলে কত টাকা নিয়েছেন, কেন নিয়েছেন, টাকা কোথায় গেল? টাকা নিয়ে থাকলে বিনিময়ে কী প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল? এসব প্রশ্নের উত্তরে সেবার সিবিআই খুশি হয়নি৷ তাই তাকে ফের ডাকা হয়েছে বলে সিবিআই সূত্রে খবর।