বারাকপুর: বিজেপি পরিচালিত পুরসভাগুলিতে আটকে রয়েছে উন্নয়নের কাজ, বেতন পাচ্ছেন না শ্রমিকরা। রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রী কৃষ্ণ বলে বিদ্রুপ করলেন বিজেপি বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়।

বীজপুর বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কাঁচরাপাড়া পুরসভার লিচুবাগান এলাকায় স্বচ্ছ ভারত অভিযানে অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি। এই প্রসঙ্গে জ্যোতিপ্রিয় বাবু বলেছিলেন, “পুরসভার কাজের দ্বায়িত্ব তাদের নিজেদের, সেই কাজ করতে না পারা সংশ্লিষ্ট পুর বোর্ডের ব্যর্থতা। এরজন্য রাজ্য সরকারকে দায়ী করে লাভ নেই।”

এই প্রসঙ্গে শুভ্রাংশু রায়কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন,”জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক তৃণমূল কংগ্রেসের কৃষ্ণ ঠাকুর, উনার প্রসঙ্গে কি আর বলব? উনি জেলা পার্টি অফিসকে বৃন্দাবন বানিয়ে দিয়েছেন। এইজন্যই উনি নিজে লোকসভা ভোটের ফলাফলে নিজের কেন্দ্রে ২৭ হাজার ভোটে পরাজিত হয়েছেন।”

বীজপুর বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কাঁচরাপাড়া পুরসভার লিচুবাগান এলাকায় স্বচ্ছ ভারত অভিযানে অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি। এলাকা সাফাই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আগে যে ভাবে এলাকা সাফাইয়ের কাজ হত, এখন তা হয় না। বিভিন্ন অঞ্চলে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছেন নাগরিকরা। মশা মারার তেল নিয়মিত দেওয়া হচ্ছে না, সাফাইয়ের কাজ ঠিকঠাক হচ্ছে না। পুরসভার আরো দ্বায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে।

আজ স্বচ্ছ ভারত অভিযানে দলীয় কর্মসূচি পালন করলাম আমরা। বিভিন্ন এলাকায় ব্লিচিং পাউডার দিলাম। তবে আমি মনে করি সাফাই অভিযান নিয়মিত করতে হবে। নিজে পরিষ্কার থাকতে হবে, এলাকা পরিষ্কার রাখতে হবে। শহরকে সবুজ রাখতে হবে।”