বার্সেলোনা: কোভিড ১৯ -এর সমস্ত উপসর্গই রয়েছে অভিনেত্রী শ্রিয়া সরনের স্বামী আন্দ্রে কোসচিভের। কিন্তু স্পেনের হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। বলা হয়েছে বাড়িতেই থাকতে। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন শ্রিয়া নিজে।

শ্রিয়া ও আন্দ্রে স্পেনেই থাকেন। করোনায় যে দেশগুলি সবচেয়ে আক্রান্ত হয়েছে তার মধ্যে স্পেন অন্যতম। এদিক আন্দ্রের জ্বর ও শুকনো কাশি-সহ বেশ কিছু উপসর্গ রয়েছে। এসব দেখে হাসপাতালে গিয়ে ফিরে আসতে হয়েছে তাঁদের।

শ্রিয়া বলছেন, আন্দ্রের হঠাৎ জ্বর ও শুকনো কাশি শুরু হয়। আমরা সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে যাই। কিন্তু চিকিৎসকরা আমাদের ফিরে যেতে বলেন। চিকিৎসকরা বলেন, ওর করোনা ভাইরাস না হলেও, এখানে থাকলে হয়ে যাবে। তাই বাড়ি ফিরে এসে আমরা আইসোলেশনে চলে যাই। আমরা আলাদা জায়গায় ঘুমোচ্ছি এবং দূরত্ব বজায় রাখছি। তবে এখন ও আগের থেকে ভালো আছে।

গত ১৩ মার্চ দ্বিতীয় বিবাহ বার্ষিকী ছিল শ্রিয়া ও আন্দ্রের। তখনই কোভিড ১৯ তার দাপট দেখানো শুরু করে দিয়েছে। অভিনেত্রী বলছেন, আমরা রেস্তোরাঁ আগে থেকে বুক করে রেখেছিলাম। কিন্তু গিয়ে দেখি সেই রেস্তোরাঁ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। তখনই বুঝলাম সাংঘাতিক কিছু হচ্ছে। গোটা স্পেন লকডাউনে চলে যায়। তখন থেকেই সব বদলে যায়। পুলিশ কড়া নির্দেশ জারি করে, প্রতি বাড়ি থেকে কেবল একজনই বেরোতে পারবেন খুব প্রয়োজন হলে।

এই প্রসঙ্গে শ্রিয়া বলছেন, আন্দ্রে আর আমি একবার একসঙ্গে বেরিয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ বুঝতে পারেনি কারণ ও হোয়াইট আর আমি ব্রাউন। তাই পুলিশ ছেড়ে দেয়।

২০১৮-য় উদয়পুরে আন্দ্রের সঙ্গে বিয়ে হয় শ্রিয়ার। আওয়ারাপান, দৃশ্যম-এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন শ্রিয়া সরন।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।