মুম্বই: অনুষ্কা শর্মা ও করিনা কাপুরের পর এবার সন্তান মুখ দেখতে চলেছেন শ্রেয়া ঘোষাল। টুইটারে এই সুসংবাদ দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার টুইটারে গায়িকা নীল রঙের গাউন পরে একটি ছবি পোস্ট করেন। ছবিতে তাঁর বেবি বাম্প স্পষ্ট। গায়িতা লেখেন, “বেবি শ্রেয়াদিত্য আসছে। শিলাদিত্য ও আমি আপনাদের সঙ্গে এই খবর শেয়ার করতে পেরে খুশি। আমাদের জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করার জন্য আপনাদের ভালোবাসা ও আশীর্বাদ প্রয়োজন।”

কিছুদিন আগেই দ্বিতীয়বার মা হয়েছেন করিনা কাপুর খান। পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। নবজাতককে নিয়ে বাড়িতে ফেরার পর করিশ্মা কাপুর, সোহা আলি খান, কুণাল খেমুরা দেখতে আসেন তাঁদের। করিনার মা ববিতা কাপুর, দিদি করিশমা কাপুর সকলেই এসেছিলেন সইফ-করিনার বাড়িতে। সইফ, করিনার নতুন বাড়িতে হাজির হন সারাও। নিজের ছোট ভাইয়ের জন্য বেশ পছন্দসই এবং দামি উপহার আনেন তিনি। তার কিছুদিন আগে কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন অনুষ্কা শর্মা ও বিরাট কোহলি। মেয়ের নাম তাঁরা রেখেছেন ভামিকা। যদিও সইফ ও করিনার দ্বিতীয় ছেলের নাম এখনও প্রকাশ্য়ে আসেনি।

প্রসঙ্গত, করিনা ও অনুষ্কা দুজনেই এখন মাতৃত্বের স্বাদ চেটেপুটে উপভোগ করছেন। প্রেগন্যান্সির মধ্যেও আমির খানের সাথে পুরোদমে দিল্লীতে ‘লাল সিং চাড্ডা’ শুটিং চালিয়ে গেছিলেন তিনি। দিল্লীতে স্ত্রীর যত্ন নিতে পৌঁছেছিলেন সইফ আলি খান ও বড় ছেলে তৈমুর আলি খান। মাতৃত্ব মানেই যে শুধু বিরতি আর অখণ্ড অবসর নয় তা করিনার জীবন থেকে স্পষ্ট। তাই দ্বিতীয় প্রেগন্যান্সির পরেই নিজের অনুরাগীদের জন্য যে ছবি তিনি পোস্ট করলেন তাঁর টাইমলাইনে তাতেও তাঁর রূপ থেকে জেল্লা উপচে পড়ছে।মাথায় টুপি,চোখে কালো সানগ্লাস আর পাউটমুখী করিনার রূপ দেখে মন ভরে গেলো অনুরাগীদের। অর্জুন কাপুর কমেন্ট বক্সে লিখেছেন ‘ রোস্ট চিকেন গ্লো‘।

করিনার পর এবার পালা শ্রেয়ার। তাঁর কাছ থেকে সুখবর শোনায় আশায় অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন অনুরাগীরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।