ক্যানিং: বিধানসভা ভোটের ঠিক আগে তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তাল ক্যানিংয়ের গোলাবাড়ি এলাকা। দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ চলে। বোমাবাজি, গুলি চালানোরও অভিযোগ ওঠে। ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে উত্তেজনা আরও বাড়ে। সংঘর্ষে আহতদের ক্যানিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যদিও শাসকদলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের অভিযোগ মানতে চায়নি এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যুব তৃণমূল ও আদি তৃণমূলের কর্মীদের মধ্যে রবিবার থেকেই বাদানুবাদ শুরু হয়। মূলত এলাকায় রাজনৈতিক কর্তৃত্ব কাদের হাতে থাকবে তা নিয়ে গন্ডগোলের সূত্রপাত হয়। রবিবার রাতেও বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ের গোলাবাড়ি এলাকায়।

সোমবার সকাল থেকে উত্তেজনা আরও বাড়ে। অভিযোগ যুব তৃণমূলের কর্মীরা আচমকাই আদি তৃণমূলের কেকজন নেতার উপর চড়াও হয়। দু’পক্ষের মধ্যে তীব্র বাদানুবাদ চলে। মুহূর্তে সেই বাদানুবাদ রূপ নেয় সংঘর্ষের।

এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ। এদিকে, গন্ডগোলের খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছে যায় পুলিশ। দু’পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করেন পুলিশকর্মীরা। তবে এরই মধ্যে সংঘর্ষ আরও বেড়ে যায়। লাঠি, বাঁশ নিয়ে একে অপরের দিকে চড়াও হয় দু’পক্ষ।

ধুন্ধুমার সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা এলাকা। বন্ধ হয়ে যায় এলাকার দোকান-বাজার। সংঘর্ষ চলাকালীন গুলি চালানোরও অভিযোগ ওঠে। সংঘর্ষের জেরে আহত বেশ কয়েকজনকে ক্যানিং হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করা হয়।

এদিকে, গোষ্ঠী সংঘর্ষের অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। স্থানীয় তৃণমূল নেতারা জানিয়েছে, এই গন্ডগোলের সঙ্গে দলের কোন্দলের যোগ নেই। অন্যদিকে, পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। যদিও এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সংঘর্ষের ঘটনায় কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.