লাহোর: ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পাক তারকা অল-রাউন্ডার শোয়েব মালিকের গাড়ি। রবিবার লাহোরের রাস্তায় একটি ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে শোয়েবের বিলাসবহুল স্পোর্টস কারের সামনের অংশ একেবারে গুঁড়িয়ে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে অক্ষত রয়েছেন শোয়েব মালিক নিজে।

উল্লেখ্য, রবিবার লাহোরের হাই-পারফরম্যান্স সেন্টার আসন্ন পাকিস্তান সুপার লিগের ড্রাফটে অংশগ্রহণ করে বাড়ি ফেরার পথে শোয়েব এই ভয়ানক পথ দুর্ঘটনার কবলে পড়েন বলে জানা গিয়েছে। সেদেশের সামা টিভির রিপোর্ট অনুযায়ী, ড্রাফট সেরে বাড়ি ফেরার পথে একদা জাতীয় দলের সতীর্থ ওয়াহাব রিয়াজের গাড়ি ওভারটেক করতে গিয়েই দুর্ঘটনার সম্মুখীন হতে হয় জাতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ককে।

রিয়াজের গাড়ি ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শোয়েব তাঁর শখের স্পোর্টস কার নিয়ে ধাক্কা মারেন রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকে। ঘটনায় দুমড়ে-মুচড়ে যায় প্রাক্তন পাক অধিনায়কের গাড়ির সামনের অংশ।

পরে উদ্বিগ্ন অনুরাগীদের আশ্বস্ত করে নিজের অক্ষত থাকার কথা জানিয়েছেন এদেশের জামাই তথা টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জার বেটার-হাফ। টুইটে শোয়েব লেখেন, ‘আমি সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছি। এটা নিছকই একটা দুর্ঘটনা তবে সর্বশক্তিমান এক্ষেত্রে আমার সহায় হয়েছেন। যারা আমার খবর পেতে উদ্বিগ্ন ছিলে প্রত্যেককে ধন্যবাদ। আমি কৃতজ্ঞ তোমাদের ভালোবাসায়।’

পাকিস্তানের জার্সি গায়ে ৩৫টি টেস্ট, ২৮৭টি ওয়ান-ডে এবং ১১৬টি টি২০ খেলা বছর আটত্রিশের শোয়েব এখন জাতীয় দলে অনিয়মিত। তবু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে এখনও অফিসিয়ালি অবসর গ্রহণ করেননি দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড আয়োজিত পাকিস্তান সুপার লিগে পেশোয়ার জালমি ফ্র্যাঞ্চাইজির গুরুত্বপূর্ণ অংশ তিনি।

রবিবার পিএসএল ড্রাফটে পেশোয়ারের দলটি শোয়েবকে প্ল্যাটিনাম ক্যাটেগরিতেই রিটেইন করেছে বলে জানা গিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।