করাচি: আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ আত্মপ্রকাশ করার পর খবরের শিরোনামে শাহিদ আফ্রিদি৷ প্রাক্তনদের নিয়ে কড়া মন্তব্যের জন্য সমালোচিত হয়েছেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক৷ তবে অবশেষে শোয়েব আখতারকে পাশে পেলেন আফ্রিদি৷

বৃহস্পতিবার এক টেলিভিশন প্রোগ্যামে প্রাক্তন পাক অল-রাউন্ডারের পাশে দাঁড়িয়ে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস বলেন, ‘আফ্রিদির সঙ্গে যা ঘটেছে সেটাই ও লিখেছে৷ খেলার সময় দেখেছি ওর সঙ্গে সিনিয়ররা খুব খারাপ ব্যবহার করতে৷ আমি নিজের চোখে এই ঘটনা দেখেছি৷ সুতরাং আমি এ ব্যাপারে ওর সঙ্গে একমত৷’ আত্মজীবনীতে আফ্রিদি লিখেছেন, ১৯৯৯ ভারতের বিরুদ্ধে চেন্নাই টেস্টের নেটে তাঁকে ব্যাট করতে দেননি তৎকালীন পাক কোচ জাভেদ মিয়াঁদাদ৷

পরে ১০ সিনিয়র ক্রিকেটার আফ্রির কাছে ক্ষমাও চেয়েছিলেন বলে দাবি করেন শোয়েব৷ তিনি বলেন, ‘বেশ কয়েক বছর পর ১০ জন সিনিয়র প্লেয়ার আফ্রিদির কাছে তাদের কাজের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেয়৷’ শুধু আফ্রিদিকে নয়, তাঁকে শারীরিকভাবেও নিগৃহ হতে হয়েছিল সিনিয়রদের দ্বারা৷ এমনই বিষ্ফোরক দাবি করে আখতার বলেন, ‘একবার অস্ট্রেলিয়া সফলে চার খেলোয়াড় আমার দিকে ব্যাট নিয়ে আঘাত করেছিল৷’

শুধু প্রাক্তন সতীর্থ নয়, প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীর সম্পর্কে আত্মজীবনীতে কুরুচিকর মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ান আফ্রিদি৷ প্রাক্তন পাক অল-রাউন্ডারকে টুইটারে পালটা আক্রমণ করেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন বাঁ-হাতি ওপেনার৷ প্রাক্তনদের নিয়ে বেশ কিছু বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য সিন্ধ হাইকোর্টে আফ্রিদির আত্মজীবনী ‘গেম চেঞ্জার’ নিয়ে পিটিশন ফাইল হয়৷ আদালত বই পুনরায় সংস্করণ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে৷

আত্মজীবনিতে গম্ভীরকে ব্যক্তিত্বহীন বলে কটুক্তি করেন আফ্রিদি৷ ভারতীয় ওপেনারকে দাম্ভিক বলেও বর্ণনা করেন তিনি৷ গম্ভীরকে ক্রিকেটের ক্রিকেটের লজ্জা বলতেও কুণ্ঠা বোধ করেননি পাক অলরাউন্ডার৷ আফ্রিদি লেখেন, ‘কিছু শত্রুতা ব্যক্তিগত, কিছু পেশাগত৷ গম্ভীরের ক্ষেত্রে বিষয়টা ব্যক্তিগত পর্যায়ের৷ গম্ভীর অত্যন্ত দাম্ভিক৷ ওর মানসিকতার সমস্যা চিরকালের৷ গম্ভীরের কোনও ব্যক্তিত্ব নেই৷ ও এমন একজন মানুষ, যাকে ক্রিকেটের বড় লজ্জা বলা যায়৷ ওর রেকর্ড আহামরি কিছু নয়, সবটাই অমূলক দম্ভ৷’