মাউন্ট মাউনগানুই: নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচে টি-২০ সিরিজ জিতে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে ভারত৷ আর অল্পের জন্য লজ্জার ইতিহাস থেকে থামলেন টিম ইন্ডিয়ার এক বোলার৷

রবিবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বে ওভালে পঞ্চম তথা সিরিজের শেষ টি-২০ ম্যাচে এক ওভারে ৩৪ রান দেন ভারতীয় ডানহাতি মিডিয়াম পেসার শিভম দুবে৷ ইনিংসের দশম ওভারে দুই কিউয়ি ব্যাটসম্যান টিম সেফের্ট ও রস টেলরের কাছে প্রচণ্ড ঠ্যাঙানি খান দুবে৷ তাঁর ওভারের রান সংখ্যা ৬,৬,৪,১,৪(নো বল),৬,৬৷ আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের ওভার৷

টি-২০ আন্তর্জাতিকে এক ওভারে সর্বোচ্চ রানের লজ্জার রেকর্ড এখনও স্টুয়ার্ট ব্রডের দখলে৷ ২০০৭ বিশ্বকাপে ডারবানে কিংসমিডে ইংল্যান্ড পেসার ব্রডের এক ওভারে ছয় ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন যুবরাজ সিং৷ আন্তর্জাতিক টি-২০ ফর্ম্যাটে এক ওভারে এটাই সর্বাধিক রান৷

রবিবার বে ওভালে এক ওভারে চারটি ছক্কা ও চারটি বাউন্ডারি খান দুবে৷ মাত্র দু’রানের জন্য ব্রডকে ছাপিয়ে যেতে পারেননি ভারতীয় এই পেসার৷ তবে দুবের এই ওভারও ভারতের জয় কাড়তে পারেনি৷ শেষ পর্যন্ত ৭ রানে ম্যাচ জিতে নেয় ভারত৷ ১৬৩ রান তাড়া করে ১৫৯ রানে থেমে যায় কিউয়ি ইনিংস৷

রান তাড়া করতে নেমে ১৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল নিউজিল্যান্ড৷ কিন্তু ইনিংসের দশম ওভারে দুবে কিউয়িদের নতুন করে অক্সিজেন দেয়৷ শিবমের ওভারে প্রথম দু’ বলে ছক্কা হাঁকান কিউয়ি উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান সেফার্ট৷ তার পরের বলে বাউন্ডারি৷ ৩ বলে ১৬ রান তুলে ফেলার পরে চতুর্থ বলে সিঙ্গলস নেওয়ায় স্ট্রাইক পান টেলর৷ পঞ্চম ডেলিভার নো করেন দুবে৷ এই বলে বাউন্ডারি হাঁকান টেলর৷ তারপর ফ্রি-হিট এবং ওভারের শেষ বলেও ছক্কা মারেন টেলর৷

সেই সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটে একরাশ লজ্জা উপহার দেন দুবে৷ কারণ টি-২০ আন্তর্জাতিকে এর আগে কোনও ভারতীয় বোলার এক ওভারে এত রান খরচ করেননি৷ ২০১৬ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপদ্ধে লডারহিলে ৩২ রান দিয়েছিলেন স্টুয়ার্ট বিনি৷ লজ্জার এই তালিকায় তিন নম্বরে রয়েছেন সুরেশ রায়না৷ জো’বার্গে ২০১২ রায়নার বিরুদ্ধে এক ওভারে ২৬ রান নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যানরা৷