মুম্বইঃ  আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। তার মধ্যেই মোটামুটি পরিষ্কার হয়ে যাবে যে, দিল্লির ক্ষমতায় কে আসছে। যদিও এক্সিট পোল বলছে যে, বিপুল আসন নিয়ে ফের ক্ষমতায় আসছেন মোদীই। সংখ্যাগরিষ্ঠের থেকেও বেশি আসন পেয়ে ক্ষমতার মসনদে বসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই। তবু ও আসল ফলাফল প্রকাশ্যে না আসা পর্যন্ত কিছুই বলা যাচ্ছে না।

তবে সপ্তম এবং শেষ দফা ভোটের পরেই এক্সিট পোলের যে পূর্বাভাস পাওয়া গিয়েছে তাতে উচ্ছ্বসিত বিজেপি নেতা কর্মীরা। যদিও এখনও সেই অর্থে মোদী-অমিত শাহ শিবিরে সেই অর্থে কোনও উচ্ছ্বাস ধরা পড়েনি। যদিও এক্সিট পোলের পূর্বাভাস দেখে রীতিমত ঘর গুছাতে শুরু করেছেন মোদী-অমিত শাহরা। মঙ্গলবারই একদিকে দফায় দফায় বৈঠক সেরেছেন মোদীর মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে অন্যদিকে শরিকদলের নেতাদের সঙ্গেও নৈশভোজে বৈঠক করেছেন মোদী-অমিত শাহরা। এক্সিট পোলের পূর্বাভাস মতো বিজেপির সমস্ত শরিকদলই কার্যত নিশ্চিত ক্ষমতায় আসছে ফের প্রধানমন্ত্রী মোদীই। বুথ ফেরত সমীক্ষা দেখে মোদীর ক্ষমতায় ফেরা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী শিবসেনা।

শিবসেনার দলীয় মুখপত্র ‘সামনা’তে এই বিষয়ে লেখা হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে যে বুথ ফেরত সমীক্ষা বলছে মোদীই ক্ষমতায় ফিরছে। জনগণ রায় দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের পক্ষেই। ‘সামনা’তে শিবসেনা প্রশংসা করেছে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর ভূমিকারও। লেখা হয়েছে, এবারের নির্বাচনে ভালো ফল করার জন্য রাহুল এবং তাঁর বোন তথা পার্টির সাধারণ সচিব প্রিয়াঙ্কা কঠোর পরিশ্রম করেছেন। যদিও অন্যদিকে রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কার প্রতি শিবসেনার এই প্রসংসায় বিতর্কও তৈরি হয়।

‘সামনা’য় সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, মোদীর নেতৃত্বে সরকার যে কেন্দ্রে ক্ষমতা দখল করতে চলেছে, তা বলার জন্য রাজনৈতিক বিশ্লেষক হওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। দেশের মানুষ আগেই স্থির করে ফেলেছিলেন যে, মোদী সরকারকেই ফের ক্ষমতায় ফেরানো হবে। বিভিন্ন সংস্থার এক্সিট পোলে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারই ফের সরকার গড়তে চলেছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ২৭২টি আসন। সেখানে এনডিএ ৩০০-র মাইলস্টোন পার করে যাবে বলেই আগাম আভাস দেওয়া হয়েছে। রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তিশগড়ে কংগ্রেস এবং পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল ক্ষমতায় রয়েছে। এক্সিট পোল থেকে স্পষ্ট, এই সব রাজ্যেই বিজেপি ভালো ফল করতে চলেছে। মারাঠা দৈনিকের দাবি, মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা জোট ঐতিহাসিক ফল করতে চলেছে।