স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যপাল তার পদের অপব্যবহার করছে বলে একাধিকবার অভিযোগ করেছে তৃণমূল। এমনকি তাঁকে বিজেপি’র মুখপাত্র বলে তোপ দেগেছেন শাসক দলের নেতারা। এবার তৃণমূলের সুরে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে সরব হল বাংলার শিবসেনা। শুধু তাই নয়, রাজ্যপালের নামে বিধাননগর পূর্ব থানায় অভিযোগ দায়ের করল তারা।

বিধাননগর পূর্ব থানায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের নামে অভিযোগ দায়ের করলেন শিবসেনার রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অশোক সরকার। তার অভিযোগ, রাজ্যপাল বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে রাজ্যের নির্বাচিত সরকারকে অবমাননা করছেন। তাঁর আরও অভিযোগ, রাজ্যপালের বিভিন্ন মন্তব্য বাংলার পক্ষে সম্মানহানিকর এবং তিনি বাংলার সংস্কৃতিকে আঘাত করছেন।

অশোকবাবুর অভিযোগ, গত ছয় থেকে সাত মাস ধরে রাজ্যপাল তাঁর কাজ না করে শুধুমাত্র টুইট করে যাচ্ছেন সরকারের বিরুদ্ধে। আমফান ও করোনা পরিস্থিতির মধ্যে উনি সব কথায় টুইট করছেন। একটা নির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে সব রকম কার্যকলাপ করছেন। যে কথাগুলো প্রকাশ্যে আসা উচিত নয়, সেগুলিও সামনে আসছে। সরকার এবং রাজ্যপালের মধ্যে মিটিয়ে নেওয়া উচিত এই সংঘাত।

অশোকবাবু বলেন, ‘‘রাজ্যপাল সাংবিধানিক প্রধানের পদে বসে একটি রাজনৈতিক দলের হয়ে সরাসরি কাজ করছেন।” তাঁর অভিযোগ, রাজ্যপাল রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ‘প্রশাসনিক’ কথাবার্তাও বাইরে প্রকাশ করে দিচ্ছেন যা সাংবিধানিক শিষ্টাচার বিরোধী।

জানা গিয়েছে, বিধাননগর পুলিশ রাজ্য শিবসেনার সাধারণ সম্পাদক অশোক সরকারের অভিযোগপত্র গ্রহণ করলেও, এখনও পর্যন্ত একে ‘ইন্টিমেশন’ বা একটি সাধারণ চিঠি হিসাবেই গণ্য করছে।

অশোক সরকার শিবসেনায় যোগ দেওয়ার আগে, সল্টলেক এলাকার বিজেপি নেতা হিসাবে পরিচিত ছিলেন। বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গে বিরোধের জেরে তিনি দল ছাড়েন বলে জানা গিয়েছে। বিজেপি কর্মীদের অভিযোগ, তৃণমূলের ‘বি’ টিম হিসাবে কাজ করছেন অশোক সরকার।

বিধাননগর কমিশনারেট সূত্রে খবর, অশোকবাবুর করা অভিযোগ পত্র গ্রহণ করলেও তার বেশি কিছু তাঁরা ভাবছেন না। কারণ রাজ্যপালের বিরুদ্ধে এ ভাবে কেউ এফআইআর দায়ের করতে পারেন না। রাজ্যপালের সাংবিধানিক রক্ষাকবচ রয়েছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।