মুম্বই: ডোকালাম সমস্যা মেটাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিনের সঙ্গে আলোচনায় বসার ‘পরামর্শ’ দিলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে৷ আসন্ন ব্রিক্স সম্মেলন উপলক্ষে তিন দিনের চিন সফরে ডোকালাম সমস্যা মেটাতে মোদীকে উদ্যোগী হওয়ারও আর্জি জানান তিনি৷ আলোচনাই সমস্যা সমাধানের একমাত্র পথ বলেও মন্তব্য করেন ঠাকরে৷

আরও পড়ুন-   প্র্যাকটিসে আহত মেসি, ফুরফুরে মেজাজে নেইমাররা

আগামী ৩ সেপ্টেম্বর চিনের ফুজিয়ান প্রদেশের জিয়ামেনে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ তিন দিনের এই সফরে প্রেসিডেন্ট শি জিনফিং-এর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকও হবে৷ ডোকলাম সমস্যা মেটাতে চিনের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে আগেই শুরু হয়েছিল জল্পনা৷ কেননা, ডোকালাম নিয়ে প্রায় আড়াই মাস উভয় দেশের কূটনৈতিক সমস্যা তলানিতে এসে ঠেকেছে৷ এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর চিন বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষকদের একাংশ৷ মনে করা হচ্ছে, ডোকলাম সঙ্কট মেটাতে ব্রিক্স সম্মেলনকেই হাতিয়ার করতে পারেন, ভারত-চিন উভয় পক্ষই৷ ডোকলামকে সামনে রেখে সীমান্তবর্তী তিনটি ভূখণ্ডকে আলোচনার টেবিলে ফেলতে পারলেন মোদী৷ বৃহস্পতিবার সেনার পক্ষ থেকেও এই একই দাবি জানান উদ্ধব ঠাকরে৷

আরও পড়ুন–  তৃণমূল সাংসদ অপরূপা পোদ্দারের বাড়িতে সিবিআই হানা

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞদের মতে, ডোকলামে হাত পোড়ানোর পরে টনক নড়েছে মোদী সরকারের। লিপুলেখ পাসের কাছে কালাপানি এলাকায় চিনের গতিবিধি এবং পরিকাঠামো নির্মাণের বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সময়ে সাউথ ব্লকের কাছে গোয়েন্দা রিপোর্ট এসেছে৷ অন্য দিকে মায়ানমারকে সামনে রেখে ভারতের বিরুদ্ধে সামরিক ঘাঁটি তৈরি করছে বেজিং -এমন আশঙ্কাও করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী চিন থেকে মায়ানমারে যাবেন ৫ তারিখ। সেখানে সে দেশের সরকারি নেতৃত্বের কাছে বিষয়টি তুলতে চলেছেন মোদী৷