নয়াদিল্লি: বলিউডে এই প্রথম৷ করোনার টিকা নিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শিল্পা শিরোদকার৷ তবে ভারতে নয়৷ দুবাইয়ে বসেই টিকা নিলেন তিনি৷ প্রতিষেধক নেওয়ার পরই ইনস্টাগ্রামে ছবি শেয়ার করেন শিল্পা৷ মুখে মাস্ক আর হাতে ছোট্ট একটি ব্যান্ডেজ৷ করোনা টিকা নেওয়ার পর তিনি সুস্থ আছেন বলেও জানান৷

শিল্পা তাঁর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লেখেন, ‘‘ভ্যাকসিন নিয়ে এখন সুরক্ষিত!! নিউনর্মাল ২০২১৷ ধন্যবাদ UAE৷’’
৫১ বছরের শিল্পা, নম্রতা শিরোদকারের দিদি৷ একসময় দাপটের সঙ্গে বলিউডে কাজ করেছেন তিনি৷ অরপেশ রঞ্জিতের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার পর ধীরে ধীরে বলিউডকে আলবিদা জানান৷ মুম্বই ছেড়ে আপাতত শিল্পা দুবাইবাসী৷ একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে তাঁর৷ অন্যদিকে, নম্রতা এখন দক্ষিণী তারকা মহেশ বাবুর গৃহিনী৷ দুই সন্তানকে নিয়ে সুখের সংসার নম্রতার৷

‘মৃত্যদণ্ড’ অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ তৎপর৷ প্রায়ই নিজের ব্যক্তিগত জীবনের ঝলক তুলে ধরেন ভক্ত ও অনুরাগীদের জন্য৷ একসময় ‘গোপী কিষান’, ‘বেবাফা সনম’, ‘কিষাণ কানাইয়া’ ‘হাম’ ছবিতে ঝড় তুলেছিলেন শিল্পা শিরোদকার৷ কিন্তু বিয়ের পরই তিনি বলিউড থেকে ব্রেক নেন৷ ২০১৩ সালে ‘এক মুঠঠি আসমান’ দিয়ে টিভির পর্দায় কামব্যাক করেন৷

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে করোনা টিকার ট্রায়াল৷ শুরু হয়ে গিয়েছে করোনা টিকার ড্রাই রান৷ করোনা মোকাবিলায় দুবাই থেকেই টিকা নেন শিল্পা৷ টিকা নিয়েই তাঁর ২০২১ শুরু হল বলেও জানান অভিনেত্রী৷ এদিকে ভারতে দুটি কোভিড টিকায় অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ একটি ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন এবং দ্বিতীয়টি হল অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনকা ও সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার তৈরি কোভিশিল্ড৷

চলছে ড্রাই রান৷ খুব শীঘ্রই ভারত বায়োটেকের হাত ধরে দেশে আসতে চলেছে কোভিড-১৯ এর নাসাল ভ্যাকসিনও৷ নাগপুরের গিলুরকার মাল্টি স্পেশালিট হাসপাতালে শুরু হবে নাসাল ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল৷ প্রথম ও দ্বিতীয় দফার ট্রায়ালের জন্য চলছে প্রস্তুতি৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।